সম্পাদনা: শাহরিয়ার আলম

ডেস্ক এডিটর

যে ৫ কথা বাবা-মাকে না বলাই ভাল!

১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ১০:৩৭:০৪

ছবি: ইন্টারনেট

পৃথিবীতে সবথেকে আপন মানুষ বাবা-মায়ের সঙ্গে অনেকে খুব খোলাখুলি সব কথা বলেন, আবার অনেকে তা করেন না। কিন্তু কিছু কথা ওঁদের কখনও না বলাই উচিত।

সকল বাবা-মা আছেন, যাঁরা সন্তানের প্রতি যথেষ্ট যত্ন নেন না। তবে সন্তান প্রতিপালন যে সবথেকে বড় দায়িত্ব, সেটা সকলেই জানেন-বোঝেন। কিন্তু সকলের প্রতিপালনের ধরনটা এক রকম হয় না। কেউ হয়তো একটু বেশি বকাবকি করেন, কেউ কম।

দিকে সন্তান বড় হওয়ার পাশাপাশি এক পর্যায়ে তার নিজস্ব ব্যক্তিত্ব তৈরি হয়, তখন সে একটু একটু করে বাবা-মায়ের কথার উপর কথা বলতে শুরু করে। এটা ঠিক নাকি ভুল, সেই বিচার এক কথায় সম্ভব নয়। সব পরিস্থিতি নির্ভর করে তার বেড়ে উঠার উপর।

কিন্তু কিছু কথা এমন রয়েছে যা বাবা-মাকে কখনও না বলাই ভাল—

১. ‘আমি তোমাকে ঘৃণা করি’— সন্তান বয়সে যত বড়ই হোক বা ছোটই হোক। এই কথাটা যে কোনও অভিভাবকের কাছে সবচেয়ে বড় ধাক্কা।

২. ‘তোমরা আমাকে জন্ম দিলে কেন’— সন্তানকে বকাবকি করার সময়ে বা তার কোনও বিষয়ে অসুবিধে প্রকাশ করলে অনেক সময়েই অভিভাবকদের এই কথা শুনতে হয়। বিশেষ করে বিবাহবিচ্ছেদের পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি শুনতে হয় এই অভিযোগ। কিন্তু এই কথাটাও সবচেয়ে বেশি আঘাত করে তাদের।

৩. ‘তুমি বোন বা ভাইকে বেশি ভালবাসো’— অভিভাবকের কাছে তার সব সন্তানই সমান। হয়তো স্নেহের বহিঃপ্রকাশটা এক এক জনের ক্ষেত্রে এক এক রকম হয়ে থাকে। কিন্তু এটা কখনওই ভাবা উচিত নয় যে অন্য সন্তানকে তিনি বেশি ভালবাসেন এবং সেটা ভেবে তাকে কটু কথা বলা একেবারেই উচিত নয়।

৪. ‘তোমরা যদি আমার বাবা-মা না হতে তবে ভাল হত’— সম্ভবত প্রথম কথাটির চেয়েও এই কথাটি অনেক বেশি কষ্ট দেয় অভিভাবকদের।

৫. ‘তোমাকে এখন সময় দিতে পারব না’— বাবা-মায়েরা সন্তানকে বড় করে তোলার সময়ে অনেক আত্মত্যাগ করেন কিন্তু উল্টোটা সব সময়ে দেখা যায় না। যদি সত্যিই বয়স্ক অভিভাবককে সময় দিতে না পারা যায় ব্যস্ততার কারণে, তাহলেও সেটা এইভাবে বলা কখনওই কাজের কথা নয়।

বিডি২৪লাইভ/এসএ

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: