প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

রোহিঙ্গাদের নির্যাতনের কথা শুনলেন জর্ডান রাজকন্যা

২১ জানুয়ারি ২০১৯ , ১০:২১:০০

ছবি: প্রতিনিধি

ঘুমধুম তুমব্রু সীমান্তের কোনারপাড়া নো মেনস ল্যান্ডের শরণার্থী শিবির পরিদর্শন করেছেন জর্ডানের রাজকন্যা প্রিন্সেস সাফা ফিরাজ।

সোমবার (২১ জানুয়ারি) সকালে বিমানযোগে কক্সবাজার পৌঁছে সাড়ে ১১টার দিকে কোনারপাড়া ক্যাম্প পরিদর্শনে যান।এসময় ফিরাজ রোহিঙ্গাদের মুখে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনের কাহিনী শুনেন এবং রোহিঙ্গা নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন। 

তবে এ সময় তিনি সাংবাদিকদের কাছে কোনো ধরনের বক্তব্য দেননি। ঘুমধুম তুমব্রু রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মাঝি রোহিঙ্গা নেতা দিল মোহাম্মদ বলেন, তিনি পৌনে ১২টার দিকে কোনারপাড়া রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনে আসেন। এসময় আমাদের কাছে বর্তমানে জরুরি কি সমস্যা আছে তা জানতে চান।

আমরা তাকে বলেছি, রোহিঙ্গা শিবিরে আমরা ভালো নেই। আমরা আমাদের সব অধিকার নিয়ে জাতিসংঘের মাধ্যমে মিয়ানমারে ফিরে যেতে চাই। কারণ মিয়ানমারে এখন আমাদের নিরাপত্তা নেই। ‘মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও মগেরা আমাদের উপর যে জুলুম-নির্যাতন চালিয়েছে,আমাদের মা-বোন ভাইকে হত্যা করেছে সব অপরাধের বিচার আমরা চাই’।

আমরা আরও বলেছি, এখানে আমাদের সন্তানেরা পড়ালেখা করতে পারছে না। নানাবিধ সমস্যার মধ্যে আছি। আমরা যত দ্রুত সম্ভব এখান থেকে চলে যেতে চাই। তবে মিয়ানমারে আমাদের জন্য নিরাপদ পরিবেশ তৈরি হতে হবে।

সম্প্রতি রোহিঙ্গাদের নো মেনস ল্যান্ড থেকে তাড়ানোর জন্য তুমব্রু খালের উপর পাকা পিলার বসিয়ে কাঁটা তারের বেড়া সংস্কারের বিষয়টিও জর্ডানের রাজকন্যার কাছে তুলে ধরা হয়েছে বলে জানান দিল মোহাম্মদ।

দিল মোহাম্মদ আরও বলেন, আমাদের সব কথা শুনে তিনি খুব আবেগাপ্লুত হন এবং আমাদের কথার জবাবে তিনি বলেছেন, আমাদের দুঃখ-দুর্দশার সব কথা শুনে তার খুব কষ্ট লাগছে। এবং তিনি আমাদের এসব সমস্যা জাতিসংঘের কাছে জানাবেন।এসময় তিনি ছাড়াও রোহিঙ্গা নেতা অরিফ উল্লাহ, নুরুল আমিন ও হোসনে আরা নামের এক রোহিঙ্গা নারীর সঙ্গে কথা বলেন জর্ডান রাজকন্যা। 

এরপরে জর্ডানের রাজকন্যা প্রিন্সেস সাফা ফিরাজ উখিয়ার বালুখালী ক্যাম্প-১ এ বিশ্ব খাদ্য সংস্থার (ডব্লিওএফপি) পরিচালিত বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা রিক-এর ত্রাণ বিতরণ কেন্দ্র ঘুরে দেখেন এবং কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন। এরপরে তিনি বালুখালী জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) ট্রানজিট ক্যাম্প পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি সেখানে অবস্থান নেওয়া রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলেন।

উল্লেখ্য, রোহিঙ্গাদের নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন সংস্থার কার্যক্রম এবং রোহিঙ্গা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে দুইদিনের সফর শেষে মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে জডানের রাজকন্যার।

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: