প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

ইমরুল নুর

বিনোদন প্রতিবেদক

বুলবুলের মৃত্যুতে তারকাদের শোক

২৩ জানুয়ারি, ২০১৯ ০৮:৫৪:০০

ছবি : সংগৃহীত

‘এই বুকে বইছে যমুনা’, ‘পড়েনা চোখের পলক’, ‘ঐ চাঁদ মুখে যেন লাগে না গ্রহণ’, ‘ আম্মাজান আম্মাজান’, ‘তোমায় দেখলে মনে হয়, হাজার বছর আগেও বুঝি ছিল পরিচয়’, ‘তুমি মোর জীবনের ভাবনা, হৃদয়ে সুখের দোলা’, ‘তুমি আমার এমনই একজন, যারে এক জনমে ভালবেসে ভরবে না এ মন’, ‘অনেক সাধনার পরে আমি পেলাম তোমার মন’, ‘আমার জীবন নায়ে বন্ধু তুমি প্রাণের মাঝি’, ‘সব ক’টা জনালা খুলে দাও না’, ‘মাঝি নাও ছাইড়া দে’, ‘সেই রেল লাইনের ধারে’ সহ অসংখ্য কালজয়ী এই গানগুলো যিনি সৃষ্টি করেছেন, তিনি আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল।

দেশের সংগীত জগতের কিংবদন্তি গীতিকার, সুরকার ও সংগীত পরিচালক ছিলেন তিনি। এছাড়া তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধাও। তার বেশিরভাগ গানই ছিল জনপ্রিয়তার তুঙ্গে। এখনও গানগুলো সবার মুখে মুখে শোনা যায়।

দীর্ঘদিনের ক্যারিয়ারে উপহার দেওয়া অসংখ্য কালজয়ী ও জনপ্রিয় গানের স্রষ্টা বরেণ্য এই ব্যক্তিত্ব মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) ভোর সাড়ে ৪টায় মৃত্যুবরণ করেন। তার আকস্মিক মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ সংগীতাঙ্গন ও শোবিজ অঙ্গনের মানুষ। শোকের ছায়া পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও। ফেসবুকের ওয়ালজুড়ে চলছে কেবল বুলবুল বন্দনা।

দেশের শোবিজ অঙ্গনের অনেক তারকা আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন। সেগুলো থেকে কিছু ফেসবুক পোস্ট বিডি২৪লাইভ পাঠকদের উদ্দেশ্যে তুলে ধরা হলো-

শাকিব খান: বীর মুক্তিযোদ্ধা, দেশ বরেণ্য গীতিকার, সুরকার ও সংগীত পরিচালক আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তার চলে যাওয়ায় বাংলা সংগীতের অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল। গুণী এই মানুষটির মৃত্যুতে জানাই গভীর শোক। ওপারে ভালো থাকবেন অসংখ্য কালজয়ী গানের রূপকার আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল।

রিয়াজ: বীর মুক্তিযোদ্ধা, আলোকিত দেশপ্রেমিক, সংগীত পরিচালক, গীতিকার ও সুরকার আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল ভাই, কৃতজ্ঞতা ও বিনম্র শ্রদ্ধা আপনার বিদেহী আত্মার প্রতি। আজকের রিয়াজের ‘রিয়াজ’ হয়ে ওঠার পেছনে আপনার অবদান অনেক। যে প্রেম স্বর্গ থেকে এসে জীবনে অমর হয়ে রয়, সেই প্রেম আপনাকে দিলাম, হৃদয়ের মণিকোঠায় আপনার ছবি রেখে দিলাম।

নিরব: আল্লাহ উনাকে শান্তিতে রাখুন। আমার সৌভাগ্য যে, উনার সাথে একটা মুভিতে কাজ করার সুযোগ হয়েছিল।

বাপ্পী চৌধুরী: আরও একটি নক্ষত্র ঝরে পড়লো সংগীতের আকাশ থেকে। আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল স্যার, আমি একেবারে বাকরুদ্ধ! তিনি একজন মহান মুক্তিযোদ্ধা, একজন গুণী মিউজিশিয়ান, একজন অনবদ্য গীতিকার, একজন প্রখ্যাত সংগীত পরিচালক। সংগীতাঙ্গনে তার অবদানের জন্য তিনি একুশে পদক ও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেছেন। তার অসংখ্য গান লাখ লাখ মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছে। তার মৃত্যুতে আমি গভীরভাবে শোকাহত। সৃষ্টিকর্তা তার আত্মাকে শান্তিতে রাখুন।

সাইমন সাদিক: বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্রখ্যাত গীতিকার, সুরকার ও সংগীত পরিচালক আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল একুশে পদক, রাষ্ট্রপতির পুরস্কার, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কারে ভূষিত হন। ১৯৭১ সালে কিশোর বয়সে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল। আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল অসংখ্য জনপ্রিয় গানের গীতিকার, সুরকার ও সংগীত পরিচালক ছিলেন।

ইমরান মাহমুদুল: অনেক বড় একটা দুঃসংবাদ দিয়ে সকাল শুরু! দেশ বরেণ্য সুরকার, গীতিকার, মুক্তিযোদ্ধা আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল (স্যার) আমাদের মাঝে আর নেই! ইন্নানিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজেউন। আজ (মঙ্গলবার) ভোর ৪টার দিকে তিনি ইন্তেকাল করেছেন।

ন্যান্সি: বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্রখ্যাত গীতিকার, সুরকার ও সংগীত পরিচালক আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল চাচা আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন না ফেরার দেশে (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মহান আল্লাহ পাক উনাকে জান্নাতবাসী করুন, আমিন।

ঈশিকা খান: বীর মুক্তিযোদ্ধা, গীতিকার, সুরকার, আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল ভাই আর আমাদের মাঝে নেই। চলে গেলেন না ফেরার দেশে (ইন্না লিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) ভোর ৪টায় নিজ বাসায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

ঐন্দ্রিলা আহমেদ: খুব খারাপ লাগছে বুলবুল আংকেল আর নেই ভেবে। আমরা প্রায় এগারো বছর একসাথে ছিলাম। বেইলী রোডের সার্কিট হাউজের রোডে থাকতাম তখন। একই বিল্ডিংয়ে দুইজন বুলবুল থাকায় কনফিউশন হতো অনেক। প্রায়ই আমাদের কেক উনাদের বাসায় উনাদের মিষ্টি আমাদের বাসায় চলে আসতো। উনি খুব শান্ত এবং নরম মনের মানুষ ছিলেন। শুনেছি শেষের দিকটা নাকি উনার খুব খারাপ গিয়েছে, কিছু বলার নাই। যেখানেই থাকুন ভালো থাকুন।

শওকত আলী ইমন: একে একে সবাইতো চলে যাচ্ছেন। তবুও আপনার কি এতই তাড়া ছিল! আমাকে প্রায়ই বলতেন ‘ইমন তোর সাথে আমার অনেক কথা আছে’। কই কথাগুলো তো বলে গেলেননা বুলবুল ভাই। আপনি ছিলেন আমার গুরু, আমার শিক্ষক, আমার সব ভাল কাজের উৎসাহ প্রেরণকারী বটবৃক্ষ। আপনি এ দেশের জন্য যা দিয়ে গেছেন, যতদিন এ জাতি বেঁচে থাকবে আপনার নাম স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে সবার হৃদয়ে বুলবুল ভাই। অনেক পেয়েছি, শিখেছি আমিও আপনার কাছ থেকে। কত শত দিন-রাত পার করেছি স্টুডিওতে আপনার সাথে। নিজের সন্তানের মত আগলে রেখেছিলেন আজীবন, সবই এখন স্মৃতি। আল্লাহ আপনাকে বেহেশতের শ্রেষ্ঠতম স্থানে অভিষিক্ত করুন। আমিন।

দেবাশিষ বিশ্বাস: ‘তোমায় দেখলে মনে হয়, হাজার বছর তোমার সাথে ছিল পরিচয়, বুঝি ছিল পরিচয়’। নতুন করে করা এই গানটি দেখিয়ে আপনার কাছ থেকে আশীর্বাদ নেওয়ার সুযোগ দিলেন না কাকা!!!

তানভীন সুইটি: আপনার চার দেয়ালের মাঝে বন্দী হয়ে থাকার আজ অবসান হল বুলবুল ভাই। অনন্তলোকে শান্তিতে থাকবেন হে বীর যোদ্ধা। বিনম্র শ্রদ্ধা।

বিডি২৪লাইভ/আইএন/টিএএফ

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: