শিমুল বারী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

মেজর জেনারেল (অব.) মো. আব্দুর রশীদ

মিয়ানমারের সাথে বাংলাদেশের যুদ্ধ অবশ্যম্ভাবী!

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৬:৩৮:৫৩

ছবি: ইন্টারনেট

মিয়ানমার কী বাংলাদেশের সাথে যুদ্ধে জড়াতে চাচ্ছে, তবে কেন তারা বার বার সেন্টমার্টিনকে নিজেদের মানচিত্রে দেখায়? এ নিয়ে খোদ প্রশ্ন তুললেন নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব.) মোঃ আব্দুর রশীদ। তিনি বলেন, মিয়ানমার সেন্টমার্টিনকে তাদের মানচিত্রে বার বার সংযুক্ত করে প্রকাশ করছে। যা আন্তর্জাতিক নিয়মের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। তারা কাগজে কলমে সেন্টমার্টিনকে দখল দেখানোর চেষ্টা করছে। তারা যদি সত্যি সত্যি সেন্টমার্টিনকে দখল করতে আসে তাহলে বাংলাদেশ নিশ্চই বসে থাকবে না। তাদের (মিয়ানমার) সাথে যুদ্ধ অবশ্যম্ভাবী বলেছেন নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব.) মোঃ আব্দুর রশীদ।

সম্প্রতি এক বেসরকারি টেলিভিশনের টকশো অনুষ্ঠানে নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল মোঃ আব্দুর রশীদ (অব.) এসব কথা বলেন।

এদিকে ইতোমধ্যে মিয়ানমারের ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রদূতকে ডেকে কড়া ভাষায় প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

আব্দুর রশীদ বলেন, মিয়ানমার সরকার তাদের মানচিত্রে সেন্টমার্টিনকে বার বার প্রদর্শন করছে। এটি আন্তর্জাতিক আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন এবং বাংলাদেশেকে তারা চরম ভাবে উস্কানি দিয়ে যাচ্ছে। এটা তাদের দূরভিসন্ধি হতে পারে। তাদের লক্ষ্য হচ্ছে উস্কানির মধ্যমে বাংলাদেশের সঙ্গে একটা বিভেদ সৃষ্টি করা। কারণ রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে মিয়ানমার আন্তর্জাতিক চাপে রয়েছে। সেই চাপ থেকে বিশ্বের দৃষ্টি অন্যদিকে ঘোরানোর জন্য তারা একের পর এক উস্কানিমূলক কাজ করে যাচ্ছে। যদিও তাদের ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনারকে ডেকে তীব্র প্রতিবাদ জানানোর পর তারা বলেছে, আর এরকম ভুল হবে না। এর পূর্বেও তারা এমন কাজ করেছে।

জেনারেল রশীদ বলেন, সত্যি কথা বলতে কী, মিয়ানমারে কার্যত সেনা শাসনই চলছে। এ থেকে তারা বের হতে পারেনি। এছাড়া দেশটির অভ্যন্তরে জাতিগত বিভেদ রয়েছে। বিভিন্ন প্রদেশে যুদ্ধাবস্থায় আছে দেশটির সেনাবাহিনী। তার মধ্যে রোহিঙ্গা সমস্যা প্রধান। কেননা তাদের সরকার রোহিঙ্গা সমস্য সমাধানে আন্তরিক নই। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সাথে বিভিন্ন গোষ্ঠির সমস্যা লেগেই থাকে। এরকম বহুবিদ সমস্যা নিয়ে তারা সর্বদা চাপে থাকে। আন্তর্জাতিক মহলের দৃষ্টি ভিন্ন দিকে প্রবাহিত করতে তারা বিভিন্ন অপকৌশল অবলম্বন করছে। তাদের লক্ষ্য একটাই, রোহিঙ্গা ইস্যুটা যেন আন্তর্জাতিক মহল থেকে হারিয়ে যায়।

আব্দুর রশিদ বলেন, মিয়ানমার কাগজে কলমে দাবি করার চেষ্টা করছে সেন্টমার্টিন তাদের কিন্তু মিয়ানমার দখল নিতে আসেনি? কারণ তারা খুব ভাল করে জানে এটা (সেন্টমার্টিন) তাদের নই। বাংলাদেশ প্রতিবেশি রাষ্ট্রের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক বজায় রাখতে বদ্ধপরিক। সে জন্য বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক আদালতের মাধ্যমে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করে সমুদ্রসীমা বিজয় করেছে। এখন যদি তারা সেন্টমার্টিন দখল করতে আসে, তবে যুদ্ধ অবধারিত। বাংলাদেশ হাত গুটিয়ে বসে থাকবে না। কারণ বাংলাদেশ বীরের জাতি। মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। এটা ভুললে চলবে না মিয়ানমারকে।

জেনারেল রশীদ বলেন, বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ট জওয়ানরা আমাদরে সশস্র বাহিনীতে কর্মরত। বাংলাদেশকে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলা করার মতো শক্তি বাংলাদেশের রয়েছে। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রস্তুতি রয়েছে বলেও জানান তিনি।

বিডি২৪লাইভ/এমআর

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: