শামসুজ্জোহা বাবু

রাজশাহী প্রতিনিধি

রাজশাহীতে গভীর শ্রদ্ধার সাথে ভাষা শহীদের স্মরণ

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৫:২৬:০০

ছবি: প্রতিনিধি।

রাজশাহীতে গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে বায়ান্নোর ভাষা আন্দোলনো শহীদদের স্মরণ করা হচ্ছে। তাদের স্মৃতির প্রতি সম্মান জানাতে একুশের প্রথম প্রহর থেকেই শহীদ মিনারগুলোতে হাজারো মানুষের ঢল নামে।

বৃহস্পতিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২টা ১ মিনিটে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। প্রথমে মেয়র লিটনের অংশগ্রহণে রাজশাহী কলেজ কর্তৃপক্ষ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন করে। এ সময় কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর হবিবুর রহমানসহ অন্য শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

নগরীর ভুবন মোহন পার্কে রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশার পক্ষে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন ১৪ দলের স্থানীয় নেতারা। এ সময় নগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামানিক দেবুসহ দলটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। তারা পার্টি ও গণসংগঠনের পক্ষ থেকেও পুস্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন শেষে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটনের নেতৃত্বে সেখান থেকে একটি র‌্যালি বেরা করা হয়। র‌্যালিটি মনিচত্বর, সাহেববাজার, জিরোপয়েন্ট হয়ে ঐতিহাসিক ভূবনমোহন পার্ক শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে গিয়ে শেষ হয়। এরপর মেয়র খায়রুজ্জামান লিটনের নেতৃত্বে ভূবনমোহন পার্ক শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। সেখানে ভাষা শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

অন্যদিকে একুশের প্রথম প্রহরে রাজশাহী কোর্ট শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা। রাত ১২টা ১ মিনিটে এখানে প্রথমেই শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর-রহমান। এরপর একে একে শ্রদ্ধা জানান পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শক এম খুরশীদ হোসেন, রাজশাহী মহানগর পুলিশের কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার, জেলা প্রশাসক এসএম আবদুল কাদের ও জেলার পুলিশ সুপার মো. শহীদুল্লাহ। এরপর এখানে বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারিরা পুষ্পার্ঘ অর্পণের মধ্যে দিয়ে বায়ান্নোর ভাষা আন্দোলনে শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

অন্যদিকে ভুবনমোহন পার্কে রাতেই শ্রদ্ধা নিবেদন করে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়ন (আরইউজে)। এ সময় বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি মামুন-অর-রশীদ, সদস্য জাবীদ অপু, আরইউজের সভাপতি কাজী শাহেদ, সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এখানে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) মহানগর শাখা, জেলা কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), জেলা ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ), রাজশাহী মেট্রোপলিটন প্রেসক্লাব, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি, রাজশাহী ওয়াসা, ছাত্রমৈত্রী, যুবমৈত্রী, শ্রমিফ ফেডারেশনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ পুস্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

অন্যদিকে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বিএনপির নেতৃবৃন্দ। সকাল ৯টায় নগর আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে প্রভাত ফেরি বের করা হয়। সেটি রাজশাহী কলেজে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে নগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে ভাষা আন্দোলনের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। এ সময় নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারসহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: