প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

সম্পাদনা: মো: হৃদয় আলম

ডেস্ক এডিটর

‘চেনা যায় না, তবুও এডাই আমার ভাই’

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৮:০১:০০

ছবি : সংগৃহীত

পুরান ঢাকার চকবাজার এলাকায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর থেকে শুধু টুকরো টুকরো গল্প এসে জড়ো হচ্ছে। গল্পের সংখ্যা গুণিতক হারে বেড়ে চলেছে। ১০...২০...৫০...। আর এর একেকটি শুধু সংখ্যাই না প্রতিটি হাজারো গল্প। আর গল্পের চরিত্রগুলো মনের ওপর প্রচণ্ড চাপ সৃষ্টি করে।

এই গল্পের একটি চরিত্র আবু ইছাক। তিনি চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে ভাই আবু ইছাকের মরদেহ শনাক্তে এসে আহাজারি করে মাটিতে বসে কাঁদতে কাঁদতে হাসিনা বেগম নামের এক হতভাগা বোন বলেন, গামছা দেখে আন্দাজ করছি, আমার ভাই পুইড়া গেছে। চেনা যায় না, তবুও এডাই আমার ভাই। এ ছাড়া আর কাউকে আমার ভাইয়ের মতো লাগেনি। সব জায়গায় তন্নতন্ন করছি, কোথাও আর পাই নাই। রক্তের টানে বুঝছি, এডাই আমার ভাই হইবো।

হাসিনা বেগম বলেন, একবার একটু দেখছি আমার কলিজার ভাইকে। ভিড় আর ভিড়, পুলিশে বেশি দেখতে দেই নাই। সব পুড়ে গেছে, কিছুই চিনতে পারছি না। শুধু ভাইয়ের ব্যবহার করা গামছা দেখে বুঝছি এডাই আমার ভাই। আল্লাগো, আমার ভাইকে কেন শাস্তি দিলা তুমি। আমাকেও মেরে ফেলো!

ভ্যান চালক আবু ইছাক (৩৫) পরিবার নিয়ে থাকেন কামরাঙ্গীচর। ইমরান (৬) আর আলিফ (৩) নামে তার দুই ছেলে রয়েছে। চকবাজারের বিভিন্ন ফ্যাক্টরির মাল টানেন ইছাক। কাজ শেষে বাসায় যাওয়ার আগেই আগুনে পুড়ে ছাই হয়েছেন বলে জানাচ্ছিলেন পপি আক্তার। হাসিনার পাশে বসে থাকা পপি আবু ইছাকের স্ত্রী।

পপি আক্তার বলছিলেন, আমার স্বামী রাত ১২ টার আগেই বাসায় যায় প্রতিদিন। কাল রাতেও বাসায় যাচ্ছিল। রাস্তায় জ্যামে বসেছিল, হেই সময় আগুন লাগছে। আমার স্বামীর সাথে যারা কাজ করে তাগোর কাছ থেকে আজ সকালে এসব হুনছি।

এরই মধ্যে পুরান ঢাকার চকবাজার এলাকায় অগ্নিকাণ্ডে সরকারি সংস্থার কোনো অবহেলা আছে কি না, তা খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি। শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কমিটি এ কথা জানায়।

অগ্নিকাণ্ডের উৎস খুঁজে বের করা ও ভবিষ্যতে যাতে এ ধরনের ঘটনা না ঘটে সে জন্য কর্মপন্থা নির্ধারণ করে সরকারকে সুপারিশ দেওয়ার জন্য এই পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বিডি২৪লাইভ/এইচকে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: