এস হোসেন আকাশ

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি

কিশোরগঞ্জ 

শিশুদের হাতে নির্মিত অস্থায়ী শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১০:২০:০০

ছবি : প্রতিনিধি

৫২’র ভাষা আন্দোলনে শহীদদের প্রতি ভালোবাসা আর গভীর শ্রদ্ধা জানাতে কিশোরগঞ্জ সদরের বত্রিশ এলাকার করমলী গ্রামে কোমল মতি ছোট্ট শিশুদের হাতে বাঁশ দিয়ে তৈরি করা হয় অস্থায়ী শহীদ মিনা। আর সেই শহীদ মিনারে বৃহস্পতিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) কুয়াশা মাখা সকালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায়। ছোট্ট ইমরানের হাতে গড়ে উঠা ‘ইমরান গ্যাং’ নামে একটি ছোট্ট সংগঠন।

‘ইমরান গ্যাং’ সংগঠনের উদ্যোক্তা ইমরান বলেন, আমরা আজ বাংলায় কথা বলছি। আর এই বাংলা ভাষায় কথা বলার জন্য শত সংগ্রাম করে যারা শহীদ হয়েছেন তাদেরকে স্মরণ করার জন্যই আমরা ছোটরা মিলে বাঁশ দিয়ে শহীদ মিনার তৈরি করে ফুল দিয়ে তাদেরকে শ্রদ্ধা ও সালাম জানিয়েছি।

এমন কি মায়ের কোলে চড়ে এক শিশুও ফুল হাতে নিয়ে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা ও সালাম জানিয়েছে।

অন্যদিকে জেলার কুলিয়ারচর উপজেলার ছয়সূতী ইউনিয়নের প্রত্যন্ত অঞ্চলের ক্ষুদ্র একটি পাড়া টুটারকান্দায় কোমলমতি শিশুরা নিজস্ব উদ্যোগে কলাগাছ, রঙিন কাগজ, সুতা ও বাঁশ দিয়ে ১৫টি শহীদ মিনার তৈরি করে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে তাতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছে।

বৃহস্পতিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকালে শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ওই এলাকার শিশু রাকিব, জনি, রিপন, ছবিরিন, সানিল, তানভীর, হৃদয়, শাহাদাৎ, মাহিন, রাতুল, জিদনী, রুমান ও মোবারক সহ এলাকার সমবয়সী শিশুরা বিভিন্ন দলে ভাগ হয়ে ১৫টি শহীদ মিনার নির্মাণ করে তাতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেছে।

এছাড়া ২১শে ফেব্রুয়ারির তাৎপর্য ধারণ করে ওই শিশুরা মাইক ও ডেকসেটের মাধ্যমে ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙ্গানো ২১শে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি’ সহ দেশাত্মবোধক গান পরিবেশন করে পুরো এলাকার দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়।

মাতৃ ভাষার প্রতি অনুরাগ থেকে শিশুদের অনন্য এ উদ্যোগ দেশপ্রেমিক বিবেকবান মানুষের হৃদয়ে সাড়া জাগিয়েছে। তাদের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

বিডি২৪লাইভ/টিএএফ

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: