প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

‘ইসির ৪৮ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে মর্মান্তিক ঘটনা’

২০ মার্চ ২০১৯ , ০১:০০:৫৩

ফাইল ফটো

বাঘাইছড়িতে নির্বাচন কর্মীদের উপর হামলার ঘটনাকে ৪৮ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে শোকাবহ ঘটনা বলে উল্লেখ করেছেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। সেই সঙ্গে বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন তিনি। 

মাহবুব তালুকদার জানান, তিনি ছাড়াও নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম ও শাহাদাত হোসেন চৌধুরী আহতদের দেখতে ঢাকা সিএমএইচে গিয়েছেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ ঘটনা সম্পর্কে জানতে চট্টগ্রাম গেছেন। কমিশন এ বিষয়ে অবশ্যই ব্যবস্থা নেবে।

মঙ্গলবার (১০৯ মার্চ) বিকালে আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের কাছে লিখিত বক্তব্য দেন তিনি। রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় পাহাড়িদের এক পক্ষের বর্জনের মধ্যে সোমবার ভোটগ্রহণের পর নির্বাচনী দায়িত্ব পালনকারীদের উপর সশস্ত্র হামলায় নিহত হয়েছেন অন্তত সাতজন। 

নিহতরা হলেন-আমির হোসেন, আবু তৈয়ব, মন্টু চাকমা, মিহির কান্তি দত্ত, আল আমিন, বিলকিস আক্তার ও জাহানারা বেগম। কাপুরোষিত আক্রমন ও নিরাপরাধ মানুষ 
হত্যার বিষয়ে নিন্দা জানিয়ে মাহবুব তালুকদার বলেন, ‘পার্বত্য চট্টগ্রামের বাঘাইছড়িতে যা ঘটেছে, বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের ৪৮ বছরের ইতিহাসে তা সবচেয়ে মর্মান্তিক ও শোকাবহ ঘটনা। এহেন অমানবিক বর্বরোচিত হামলায় যে ৭জন নিহক হয়েছেন, আমি তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।’ আহতদের ঢাকা ও চট্টগ্রামের সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। নিহত ও আহতদের পরিবারের সমবেদনা জানান তিনি। আজ সকালে আমি ঢাকা সিএমএইচে গিয়ে আহতদের চিকিৎসার খোঁজখবর নেই। সেখানে মোট সাতজন চিকিৎসাধীন আছেন। এদের মধ্যে তিনজনের অপারেশন হয়েছে। অন্যদেরও অপারেশন করা হবে। একজন সিসিইউতে রয়েছেন।নির্বাচন কমিশনার ডক্টর মো. রফিকুল ইসলাম ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরীও পরে সিএমএইচ পরিদর্শন করেন। 


তিনি জানান, ঘটনাটি সম্পর্কে তদন্ত করে এর কারণ ও দায়-দায়িত্ব নিরুপন করা হবে। প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের পূর্বে যে কোনো বক্তব্য তদন্তকার্যকে ব্যহত ও বিভ্রান্ত করতে পারে। কমিশন তো অবশ্যই ব্যবস্থা নেবে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার চট্টগ্রাম থেকে ফিরে এলে কমিশনের সবার সঙ্গে আলোচনা করে করণীয় সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে উল্লেখ করেন এ নির্বাচন কমিশনার।

বিডি২৪লাইভ/এমআর

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: