প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

কিশোর কর্তৃক শিশু পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগ

২১ মার্চ ২০১৯ , ০১:৪৪:০০

ছবি: সংগৃহীত

পাবনার চাটমোহরে এক লম্পট কিশোরের বিরুদ্ধে শিশু শ্রেণীতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রীকে পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।  

সোমবার (১৮ মার্চ) বিকেলে উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নের শাহপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে স্বজনরা। অভিযুক্ত কিশোর চাঁদ আলী একই এলাকার কমর আলীর ছেলে। এ ঘটনায় শিশুটির নানা বাদী হয়ে চাটমোহর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
শিশুটির বাবা-মা দু’জনেই ঢাকায় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন। খবর পেয়ে কর্মস্থল থেকে তারা মঙ্গলবার ছুটে আসেন গ্রামের বাড়িতে। 

শিশুটির বাবা জানান, আমরা স্বামী-স্ত্রী পোশাক কারখানায় একসঙ্গে কাজ করার সুবাদে মেয়েকে গ্রামে নানার বাড়ি রেখে দিয়েছি। সোমবার দুপুরে ভোটের দিন বাড়িতে লোকজন কম থাকায় মেয়েকে খেলনা বানিয়ে দেওয়ার কথা বলে প্রতিবেশী চাঁদ আলী তাদের বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে শোবার ঘরে নিয়ে গিয়ে মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক পাশবিক নির্যাতন চালায় এবং এই কথা কাউকে বললে তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এরপর মঙ্গলবার সকালে শিশুটির রক্তক্ষরণ শুরু হলে সে নানা-নানীকে বিষয়টি খুলে বলে। পরে স্বজনরা তাকে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এদিকে ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর থেকে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে লম্পট চাঁদ আলী নামের ওই কিশোর।

বুধবার (২০ মার্চ) দুপুরে চাটমোহর হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায় পাশবিক নির্যাতনের শিকার শিশুটি হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে। মাঝে মধ্যেই ভয়ে আতকে উঠছে শিশুটি। এ সময় তার মা অশ্রুসিক্ত নয়নে বলেন, ‘আমার ছোট্ট মেয়ে কি অপরাধ করেছিল ওর কাছে? আমি ওর (চাঁদ আলী) ফাঁসি চাই।’

জানতে চাইলে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. পপি রানী কুন্ডু বলেন, ‘শিশুটিকে নিয়ে আসার পরে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তার মেডিকেল পরীক্ষার জন্য দুপুরে পাবনা সদরে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে প্রাথমিক চিকিৎসা দিতে গিয়ে মনে হয়েছে শিশুটি পাশবিক নির্যান করা হয়েছে।

চাটমোহর থানার ওসি (তদন্ত) মো. শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে এবং অভিযুক্ত চাঁদ আলীকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।’

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: