প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

বিডি২৪লাইভে সংবাদ প্রকাশের পর শিশুটি পেল স্বজন

২৩ মার্চ ২০১৯ , ০৩:১৯:০০

ছবি: প্রতিনিধি

দেশের প্রথম শ্রেণির ও জনপ্রিয়তার শীর্ষ থাকা পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিডি২৪লাইভ ডটকম এ মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) ‘রেললাইনে বসে কাঁদছিল শিশু!’ এই শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়।

সংবাদটি প্রকাশের ৩ দিন পর শুক্রবার (২২ মার্চ) সকাল ১০ টার দিকে শিশুটির পরিবারের লোকজন সংবাদেরর সূত্র ধরে শিশুটির খোঁজ পায়। পরে টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার গোহালিয়া ইউনিয়নের মাছুহাটা গ্রামের সেই বিলকিস বেগমের বাড়িতে এসে শিশুকে নিয়ে যায় শিশুটির স্বজন ও মা-বাবা।

বিলকিস বেগম বিডি২৪লাইভ ডটকম কে বলেন, গত মঙ্গলবার দুপুরের দিকে এক ভারসাম্যহীন লোক (শিশুর বাবা) শিশুটিকে রেললাইনে রেখে চলে যায়। তখন রেললাইনের পাশ দিয়ে হেঁটে বাড়ি যাচ্ছিলাম। পরে শিশু বাচ্চার কান্নার আওয়াজ শুনতে পেয়ে এগিয়ে গিয়ে দেখি শিশুটি প্রচন্ড কান্না করছে। পরে রেখে যাওয়া শিশুর বাবা কে আর খুঁজে পাইনি।

বিলকিস বেগম বলেন, এরপর স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় শিশুকে আমার কাছে রাখি। শিশুটি পেয়ে নিজেও অনেক অবাক হয়ে পড়েছিলাম। শিশুটি নিজের সন্তানদের মত যত্নও করেছি।

জানা যায়, শিশুটির নাম ওসমান। তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার ঝাওয়াইল। শিশু ওসমানের নানার বাড়ি রংপুরের সদর উপজেলায়। ভারসাম্যহীন শিশুর বাবা রংপুর থেকে কাউকে না জানিয়ে শিশুটিকে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়। পরে দুপুরে বঙ্গবন্ধু সেতু-জামালপুর রেল লাইন সংযোগের টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার গোহালিয়াবাড়ী ইউনিয়নের মাছুহাটা এলাকায় রেলক্রসিং স্থানে রেখে চলে আসে গোপালপুর তার বাড়িতে।

বাড়ির লোকজন তাকে জিজ্ঞেস করলে তিনি কিছু বলতে পারেনি। তারপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক বিডি২৪লাইভ ডটকম এ ‘রেললাইনে বসে কাঁদছিল শিশু!’ এ শিরোনাম একটি সংবাদ দেখতে পায়। পরে সংবাদের সূত্রে ধরে রংপুর থেকে ছুটে আসে শিশু ওসমানের মা ও তার শিশুর বাড়ির লোকজন সাথে শিশুর বাবা।

তারপর শুক্রবার (২২ মার্চ) সকালে স্থানীয় মাছুহাটা গ্রামের মেম্বার ও মাতাব্বরদের বরাতে শিশুটিকে তার স্বজনদের কাছে তুলে দেয় বিলকিস বেগম।

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: