প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

আইনজীবী শাহদীন মালিকের আক্ষেপ!

২৫ মার্চ ২০১৯ , ০৮:০৪:৩২

ফাইল ফটো

সারা বিশ্বে যখন ধর্মীয় উন্মাদনার বিষ বাষ্প ছড়িয়ে দিতে নারকীয় হত্যাযজ্ঞ চালানো হয়েছে, ঠিক তখনই রাষ্ট্র নায়কোচিত কাজ করে দেখালেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আহডার্ন। যা পৃথিবীর ইতিহাসে অন্যান্য দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবেন। বিদ্বেষ ছড়িয়ে পৃথিবীতে কখনও কোন কিছু প্রতিষ্ঠা করা যায় না বলে জানিয়েছেন সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. শাহদীন মালিক।

এদিকে, সদ্য শেষ হওয়া ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, এখানে নাকি ৫০ হাজার নিরাপত্তা কর্মী নিয়োজিত করতে হয়েছে। এর কারণ হলো, আমরা নিজেরা, নিজেদেরকে আর বিশ্বাস করতে পাচ্ছি না! নিজেদের মধ্যে যে বিভাজন সৃষ্টি করেছি এ জন্যই নিজেদের মধ্যেই নিরাপত্তাহীনতার অভাব বোধ করছি।

আজ সোমবার (২৫ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় আহত ও নিহতদের প্রতি শোক ও সংহতি সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় তিনি আক্ষেপ করে প্রশ্ন রাখেন, কেন আমরা নিজেদের মাঝে বিভাজন সৃষ্টি করছি? বিভাজনকে উস্কে দিয়ে নিজেদের মধ্যে বিরোধ তৈরি করে জাতি হিসেবে আমরা কতদূর এগুতে পারব?

তিনি আরও বলেন, ইতিহাস বলে বিভাজন আর বিদ্বেষ ছড়িয়ে কোন জাতি এগুতে পারেনি, ভবিষ্যতেও পারবে না।

ড. শাহদীন মালিক বলেন, নিউজিল্যান্ডের ঘটনা নিঃসন্দেহে নিন্দনীয়, এর নিন্দা জানানোর ভাষা আমার জানা নেই। এমন নারকীয় ঘটনায় আমরা মর্মাহত, শোকাহত। কিন্তু এই ঘটনা থেকে আমরা একটি বড় শিক্ষাও নিতে পারি। সেটি হলো দুঃসময়ে জাতি হিসেবে কী করে এক কাতারে এসে দাঁড়ানো যায়। কিন্তু দুর্ভাগ্য আমাদের, জাতি হিসেবে দিনকে দিন নিজেদের মাঝে দেয়াল তুলে দিচ্ছি। এক সময় আমাদের জীবনে ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

তিনি আরও বলেন, নিউজিল্যান্ড থেকে আমাদেন শিক্ষা নিতে হবে। কিভাবে সংকটময় মুহূর্তে তারা সবাই এক কাতারে সামিল হয়েছে। অথচ আমরা পাচ্ছি না, নিজেদের মধ্যে আমরা এখনও বিভাজন সৃষ্ট করেই রেখেছি। একপক্ষকে দোষ দিয়ে অন্য পক্ষ এগিয়ে যেতে পারে না। দেশকে এগিয়ে নিতে হলে সকল ভেদাভেদ ভুলে এক কাতারে এসে কাজ করার মানসিকতা তৈরি করতে হবে। আমাদের সংকীর্ণতা ছেড়ে বৃহৎ স্বার্থে দেশের মঙ্গলের জন্য এক হয়ে কাজ করতে হবে।

বিডি২৪লাইভ/এসবি/এমআর

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: