প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

মো. ইলিয়াস

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

হঠাৎ রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ

২৯ মার্চ, ২০১৯ ২২:০৬:০৩

ছবি: সংগৃহীত

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিএনপি।

আজ শুক্রবার (২৯ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৪টায় দিকে বিক্ষোভ মিছিল নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে নাইটিঙ্গেল মোড় ঘুরে আবারও নয়াপল্টন কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়। মিছিলে নেতৃত্ব দেন বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

মিছিলে নেতাকর্মীরা বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে সোচ্চার কন্ঠে শ্লোগানে শ্লোগান দেয়।

মিছিল শেষে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক পথসভায় রিজভী বলেন, গত ৩০ ডিসেম্বর মিডনাইট নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করে প্রধানমন্ত্রী গণতন্ত্রের শেষ চিহ্নটুকু মুছে ফেলতে উঠেপড়ে লেগেছেন। সেজন্য তিনি এখন বাকশালের প্রশংসা করে বক্তব্য রাখছেন। অর্থাৎ বাক স্বাধীনতা, মত প্রকাশের স্বাধীনতা তথা গণতন্ত্রকে কফিনে মুড়িয়ে কবর দেয়ার জন্যই বাকশাল নামক ‘৭৫ এর দুর্বিষহ দু:শাসনের কালের জয়গান শুরু করেছেন। শেখ হাসিনার এই বক্তব্য অশুভ ইঙ্গিতবাহী। নিষ্ঠুর কর্তৃত্ববাদী শাসনের পথে যাতে কোন ধরণেরই কাঁটা না থাকে সেজন্য এদেশে গণতন্ত্রকে যিনি বারবার স্বৈরশাসনের শৃঙ্খল ভেঙ্গে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছেন সেই ‘গণতন্ত্রের মা’ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বেআইনীভাবে কারাগারে বন্দী করে রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘দেশনেত্রীর জীবন এখন চরম সংকটের মধ্যে। অবহেলা ও বিনা চিকিৎসায় কারাগারে বেগম জিয়াকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে এক বিভিষিকাময় পরিস্থিতির দিকে। তিনি এখন জীবন-মরণের সন্ধিক্ষণে। সরকার কর্তৃক বেগম জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসাকে বাধাগ্রস্ত করা দুরভিসন্ধিমূলক। গণবিরোধী কাজের দরুন এখন সরকারের কোন গণভিত্তি নেই। আওয়ামী সরকার ঔপনেবেশিক শাসনের মতো জনগণের ক্ষমতাকে কেড়ে নিয়ে জনগণের স্বাধীনতাকে হরণ করেছে। গণশক্তির কাছে এই সরকার অল্প কিছুদিনের মধ্যেই নতজানু হয়ে পড়বে। শেখ হাসিনার অপশাসন জনগণ সকল শক্তি দিয়ে রুখে দিবে। গণতন্ত্র পূণ:রুদ্ধার ও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করতে এখন সংগ্রামী জনতা রাজপথে ধেয়ে আসছে।’

বিডি২৪লাইভ/এমআর

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: