প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

মোটর বাইকের পেছনে কে বসতে পারবেন- তা নিয়ে বিতর্ক

প্রকাশিত: ১২:১২ অপরাহ্ণ, ১৪ এপ্রিল ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

বাংলা নববর্ষের দিন নিরাপত্তা নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের একটি নির্দেশনা ব্যাপক আলোড়ন তৈরি করেছে সামাজিক মাধ্যমে বিশেষ করে ফেসবুকে।

ঐ নির্দেশনার বলা হয়েছিল, "এক মোটর সাইকেলে চালক ছাড়া কোনো আরোহী থাকবেন না, তবে স্বামী-স্ত্রী একসাথে মোটর সাইকেলে উঠতে পারবেন।"

সিলেট মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার জেদান আল মুসা বিবিসি বাংলাকে জানান, নববর্ষের দিন সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এমন পদক্ষেপ নিয়েছেন তারা।

মি. মুসা বলেন, "সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে যেখানে মোটর সাইকেলে দু'জন আরোহী মিলে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটিয়েছেন।"

"এই ধরণের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা রোধ করতেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।"

"তাই আমরা চাই না একটি মোটর সাইকেল একের অধিক যাত্রী বহন করুক। নির্দেশনায় বলা আছে একসাথে বা দলগতভাবে মোটর সাইকেল চালিয়ে জনগণের মনে আতঙ্ক তৈরি করা যাবে না।"

কিন্তু নির্দেশনা অনুযায়ী, স্বামী-স্ত্রী বাদে মোটর বাইকে অন্য যুগল উঠলে কী করবে পুলিশ?

মি. মুসা বলেন, "আমরা বিষয়টা আসলে ঐভাবে বোঝাই নি। একজন ব্যক্তি তার মা, বোন বা মেয়ে বন্ধুকে নিয়ে মোটর সাইকেলে উঠতেই পারেন। সেক্ষেত্রে এটিকে নিরাপত্তা ঝুঁকি বলে মনে করি না আমরা।"

যদিও সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের নির্দেশনায় ছিল যে একটি মোটর সাইকেলে শুধুমাত্র স্বামী-স্ত্রীই বসতে পারবেন, অন্যথায় চালক বাদে অন্য কেউ থাকতে পারবেন না মোটর সাইকেলে। এ খবর দিয়েছে বিবিসি বাংলা।

তবে মি. মুসা বিবিসিকে নিশ্চিত করেন, নববর্ষের দিন স্বামী-স্ত্রী ছাড়াও একজন ব্যক্তি তার মেয়ে বন্ধুকে নিয়ে মোটর সাইকেলে উঠতে পারবেন।

এ সম্পর্কে মি. মুসা বলেন, "এই বিষয়ে যেন ভুল ধারণা তৈরি না হয় সেসম্পর্কে আমরা এরই মধ্যে সংশ্লিষ্টদের জানিয়েছি।"

মি. মুসা বলেন এই নির্দেশনা পালনের ক্ষেত্রে নববর্ষের দিন যেন ভুল বোঝাবুঝি তৈরি না হয় তা নিশ্চিত করতে ট্রাফিক পুলিশ ও নববর্ষের দিন নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তাদের কাছে বিষয়টি পুনরায় পরিষ্কার করে জানানো হয়েছে।

বিবিসির সাথে সাক্ষাৎকারের সময় মি. মুসা জানান, বিষয়টির সংশোধনী সম্পর্কে অবহিত করার জন্য দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের এবং সংশ্লিষ্টদের বলা হয়েছে।

তবে রাত ১টা ১৯ মিনিটের দিকে 'সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ-এসএমপি' নামে একটি ফেসবুক পাতায় নির্দেশনাটির পোস্টটি সম্পাদনা [এডিট] করা হয় এবং ২টা ১২ মিনিটের দিকে এ বিষয়ে সংশোধনী প্রকাশ করা হয়।

এদিকে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের এই বিবৃতি নিয়ে ফেসবুক কমেন্টে এবং বিভিন্ন পেইজে ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ করে পোস্ট করেছেন অনেকেই।

দুলাল দাস নামের একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন, "প্রেমিক প্রেমিকারা সাবধান...স্বামী-স্ত্রী আপনারা কাবিননামা সাথে নিয়ে বের হবেন।"

জয়নুল আবেদিন জয় ব্যঙ্গ করে লিখেছেন, "আজ বউ নাই বলে মোটর সাইকেলে উঠতে পারবো না।"

বিডি২৪লাইভ/এমআর

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: