আবারও ফেসবুকের জালিয়াতি

১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০৯:১২:১৪

ছবি: ইন্টারনেট থেকে

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেরগুলোর মধ্যে অন্যতম মাধ্যম হলো ফেসবুক। আর আপনার যোগাযোগ করা কন্টাক্ট লিস্ট আপলোড করে নিয়েছে ফেসবুক। প্রতিষ্ঠানটি দাবি করে আসছে, এটা অনিচ্ছাকৃত। তবে একজন নিরাপত্তা বিশ্লেষক দাবি করেছেন, ২০১৬ সালের মে মাসের পর থেকে নতুন ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ই-মেইল কন্টাক্ট লিস্ট আপলোড করেছে ফেসবুক। এখন পর্যন্ত ১৫ লাখ ফেসবুক ব্যবহারকারীর কন্টাক্ট লিস্ট আপলোড করা হয়েছে।

আন্তর্জাতিক ব্যবসা ও প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট বিজনেস ইনসাইডারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, কেউ যদি নতুন অ্যাকাউন্ট খোলার সময় ই-মেইল পাসওয়ার্ড দেন, তবে একটি বার্তা দেখতে পান যাতে কনটাক্ট লিস্ট স্থানান্তর করার জন্য অনুমতি চায় ফেসবুক।

সম্প্রতি এক নিরাপত্তা গবেষক খেয়াল করেন, কিছু কিছু ফেসবুক ব্যবহারকারীর ক্ষেত্রে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ই-মেইলের পাসওয়ার্ড দিতে বলছে। নতুন অ্যাকাউন্ট খুলে তাদের পরিচিতি শনাক্ত করার সময় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ই-মেইলের পাসওয়ার্ড জানতে চাইছে। বিষয়টির ব্যাপক নিন্দা করছেন গবেষকেরা।

এদিকে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ দাবি করে বলছে, অনিচ্ছাকৃতভাবেই ওই কনটাক্ট লিস্ট আপলোড হয়েছিল। ২০১৬ সালের আগে ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট নিশ্চিত করার ও কনটাক্ট স্বেচ্ছায় একই সময় আপলোড করার সুযোগ ছিল। কিন্তু পরে ফেসবুক ওই ফিচার পরিবর্তন করে। তবে তারা যে কনটাক্ট আপলোড করেছিল, তা মুছে ফেলা হয়েছে। তবে এর পেছনের ফাংশন তা বলে না।

প্রতিষ্ঠানটির মুখপাত্র বলেন, ব্যবহারকারীর মেইলের কনটেন্ট ফেসবুক পড়ে না বা সেখানে ঢুকতে পারে না। তবে অজান্তেই প্রায় ১৫ লাখ অ্যাকাউন্টের কনটাক্ট লিস্ট আপলোড হয়ে যায়। এখন তা মুছে ফেলা হয়েছে।

তবে বিশ্লেষকদের ধারণা, ফেসবুক ব্যবহারকারীদের প্রাইভেসি নিয়ে সামনে হয়তোবা আরও একটি বড় কেলেঙ্কারির শিকার হতে যাচ্ছে, যা অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে প্রতিষ্ঠানটিকে বলে মনে করা হচ্ছে।

বিডি২৪লাইভ/এসএএস

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: