প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

সৈয়দ আশরাফের নামে হচ্ছে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা মিলনায়তন

১৯ এপ্রিল ২০১৯ , ১০:১৩:৫৯

২০১৩ সালের ৫ আগস্ট কিশোরগঞ্জ প্রেসক্লাবের নবনির্মিত শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মিলনায়তনের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় আওয়ামী লীগের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক ও এলজিআরডি মন্ত্রী প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছিলেন, ‘এদেশে নাম নিয়ে বাণিজ্য চলছে। বাংলাদেশ এক অদ্ভূত দেশ। এদেশে নামকরণ নিয়ে অশুভ প্রতিযোগিতা চলছে। ইউরোপের কোন দেশে কারো মৃত্যুর অন্তত দশ বছর পর কনসিডার করা হয়, তার নামে কোন প্রতিষ্ঠান করা যায় কিনা। আমাদের দেশে মৃত্যু তো দূরের কথা, জীবিত অবস্থায়ই ব্যক্তির নামে গজিয়ে উঠে নানা প্রতিষ্ঠান। যাদের কোন বিন্দুমাত্র যোগ্যতা নেই, শিল্প, সাহিত্য, রাজনীতি কিংবা জাতীয় জীবনে যাদের কোন সিগনিফিক্যান্ট অবদান নেই, তাদের নামে প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান।’

সৈয়দ আশরাফ আরো বলেছিলেন, এক সরকারের আমলে নাম দেয়া হয়, আরেক সরকার এসে সেটা পরিবর্তন করে। নিজেদের বড় করার এ প্রতিযোগিতাকে দুঃখজনক বলেও উল্লেখ করেছিলেন তিনি।

তিনি আরো বলেছিলেন, ‘আমি নিজে এই কালচারের পক্ষে নই। আমি মনে করি, এর পরিবর্তন হওয়া প্রয়োজন। আমি তিনবার এমপি হয়েছি, দুইবার মন্ত্রী হয়েছি। কিন্তু আমি নিজের নামে কোন প্রতিষ্ঠান তো দূরের কথা, মুরগীর খোয়াড়েরও নাম দিইনি।’

বাস্তবিক অর্থেই সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের এই বক্তব্য প্রনিধানযোগ্য। তিন সরকারে মন্ত্রী থাকার পরও জীবদ্দশায় সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম কোন কিছুর নামকরণ নিজের নামে হতে দেননি।

গত ৩রা জানুয়ারি সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে যান বাংলাদেশের শুদ্ধ রাজনীতির আইকন সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। তাঁর এই মহাপ্রয়াণে রাজনৈতিকভাবে যেমনি অভিভাবকশূণ্য হয়ে পড়েছে কিশোরগঞ্জ, তেমনি বাংলাদেশ অনুভব করছে বিরল এই রাজনীতিকের শূণ্যতাকে।

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মহাপ্রয়াণের পর অবশেষে প্রথমবারের মতো কোন স্থাপনার নামকরণ হতে চলেছে জনতার এই নেতার নামে। নবনির্মিত কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের মিলনায়তনটির নামকরণ করা হচ্ছে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের নামে। ‘সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম স্মৃতি মিলনায়তন’ নামে নামকরণ করা হচ্ছে এই মিলনায়তনটির।

কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহদী হাসান এর উদ্যোগে ‘সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম স্মৃতি মিলনায়তন’ ছাড়াও কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্সে স্থাপন করা হচ্ছে ‘শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক কর্ণার’।

শনিবার (২০ এপ্রিল) সকালে ‘শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক কর্ণার’ এবং ‘সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম স্মৃতি মিলনায়তন’ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলামের কন্যা ও প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ছোট বোন কিশোরগঞ্জ-১ (কিশোরগঞ্জ সদর-হোসেনপুর) আসনের সংসদ সদস্য ডা. সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি।

কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহদী হাসান জানান, প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের উদ্যোগে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের নবনির্মিত কমপ্লেক্সটি নির্মাণ করা হয়েছিল। এই কমপ্লেক্সে এই কীর্তিমান মানুষটির নামে অন্তত কিছু একটা করার দায়বোধ থেকেই তাঁর নামে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনের নাম ‘সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম স্মৃতি মিলনায়তন’ করা হচ্ছে।

এছাড়া উনার মহান পিতা মুক্তিযুদ্ধকালীন সরকারের অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি কিশোরগঞ্জের সূর্যসন্তান শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলামের স্মৃতিকে ধারণ করার জন্য এখানে ‘শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক কর্ণার’ স্থাপন করা হচ্ছে। এর মাধ্যমে মহান এই দুই কর্মবীরকে যদি আমরা কিছুটা হলেও সম্মান জানাতে পারি, তাহলেই উপজেলা প্রশাসনের প্রচেষ্টা সার্থকতা পাবে।

বিডি২৪লাইভ/আরআই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: