আলফাডাঙ্গায় যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে নির্যাতন

২০ এপ্রিল, ২০১৯ ১৫:২৩:০০

ছবি: প্রতিনিধি

হারুন-অর-রশীদ,
ফরিদপুর থেকে:

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় যৌতুকের টাকা না দেয়ায় আরিফা খানম নামে এক গৃহবধূকে মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) সকাল ৯টার দিকে উপজেলার কুলধর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে আলফাডাঙ্গা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন ওই গৃহবধূর পিতা আরব আলী।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, দেড় বছর আগে কুলধর এলাকার ওমর আলী শেখের ছেলে জুয়েল শেখের সাথে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর হতেই যৌতুকের দাবিতে আরিফা খানমকে মারধর করে পিতার বাড়ি হতে টাকা পয়সা এনে দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করা হয়। আরিফা খানমের পিতা মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে জামাইকে ও তার পরিবারকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন অংকের টাকা পয়সা দেয়। তারপরেও তাদের কোন পরিবর্তন হয়নি, বরং নির্যাতন আরও বেড়ে যায়। কিছুদিন আগে বাড়িতে ঘর করার জন্য যৌতুক হিসেবে দুই লাখ টাকা এনে দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে শ্বশুর বাড়ির লোকজন। কিন্তু আরিফা যৌতুকের টাকা এনে দিতে অস্বীকার করলে শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে স্বামী জুয়েল শেখ, দেবর মিঠুন শেখ, শ্বশুর ওমর আলী, শাশুড়ি বাতাসী বেগম রড, বাঁশের লাঠি দিয়ে পেটাতে থাকেন।

এ সময় আরিফার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে তাদের থামায়। পরে আরিফার পিতা ও মাতা এসে গুরুতর আহত মেয়েকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। নির্যাতনে আরিফার শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়েছে।

এ বিষয়ে স্বামী জুয়েল শেখের মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তা সম্ভব হয়নি।

আলফাডাঙ্গা থানার ওসি রেজাউল করিম সাংবাদিকদের বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: