প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

আজ বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফের শাহাদাত বার্ষিকী

প্রকাশিত: ০৩:৪১ অপরাহ্ণ, ২০ এপ্রিল ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

হারুন-অর-রশীদ,
ফরিদপুর থেকে:

মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম বীরশ্রেষ্ঠ ল্যান্সনায়েক মুন্সি আব্দুর রউফ এর ৪৮ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ (২০ এপ্রিল) শনিবার। তৎকালীন ইপিআর এর চট্টগ্রামের ১১ নং উইং-এ কর্মরত এই বীরশ্রেষ্ঠ ১৯৭১ সালের এই দিনে শত্রুবাহিনীর সাথে এক সম্মুখ প্রতিরোধযুদ্ধে অদম্য সাহসিকতার সাথে যুদ্ধে লিপ্ত হন। শত্রুপক্ষের ২টি লঞ্চ ও একটি স্পিডবোট ডুবিয়ে ও ২ প্লাটুন শত্রুসেনাকে খতম করেন। একপর্যায়ে ভারি অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত পাকসেনাদের একটি মর্টার সেলের আঘাতে তিনি শাহাদাতবরণ করেন। রাঙ্গামাটি জেলার নানিয়ারচর উপজেলার একটি টিলার উপড়ে তাঁকে দাফন করা হয়।

ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার কামারখালী ইউনিয়নের সাবেক সালামতপুর গ্রামের মসজিদের ইমাম মেহেদি হাসানের একমাত্র পুত্র সন্তান ছিলেন মুন্সি আব্দুর রউফ। এই গ্রামটির নতুন নামকরণ হয়েছে রউফনগর হিসেবে। শৈশবে পিতাকে হারিয়ে পরিবারের উপার্জনের হাল ধরতে তিনি ইষ্ট পাকিস্থান রাইফেলস সংক্ষেপে ইপিআর এ যোগ দেন। তার মা মুকিদুন্নেসা বেগম মারা গেছেন। তাঁর দুই বোনের বড় বোন বিধবা জোহরা বেগম (৬০) দুই সন্তানকে সাথে নিয়ে পৈত্রিক ভিটায় বীরশ্রেষ্ঠ ভাইয়ের স্মৃতি আকঁড়ে বেঁচে রয়েছেন। আর আদরের ছোটবোন হাজেরা বেগম (৫৫) থাকেন পাশের জেলা রাজবাড়ির বালিয়াকান্দি উপজেলার সাংগুরা গ্রামে।

বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফের স্মৃতিকে অমলিন রাখতে সরকার তার নিজ গ্রামে ‘বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফ স্মৃতি জাদুঘর ও গ্রন্থাগার’ স্থাপন করেছে। ৪৮ তম শাহাদাৎবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর পরিবারের উদ্যোগে স্মৃতি জাদুঘর চত্বরে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়া কোরআন খানী অনুষ্ঠিত হবে।

এসব আয়োজনের উদ্যোক্তা বীর শ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফের বড় বোন জোহরা বেগম এতে অংশ নেয়ার জন্য সকলকে অনুরোধ জানিয়েছেন। ৪৮ তম শাহাদাৎবার্ষিকীও পারিবারীকভাবেই পালন করা হচ্ছে এই বীর শ্রেষ্ঠ’র।

এ উপলক্ষষে জোহরা বেগম এক বার্তায় বলেন, ‘আমার জীবনে এক ভাইকে হারিয়ে সকল শহীদ ও মা বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে স্বাধীন সোনার বাংলাদেশ পেয়েছি। সবার প্রতি আমার আকুল আবেদন, আসুন সবাই মিলে সোনার দেশ গড়ি।’

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: