প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

কুমিল্লায় কবি সাহিত্যিকদের সাহিত্য আড্ডা ও মানববন্ধন

প্রকাশিত: ০৭:৪৪ অপরাহ্ণ, ২০ এপ্রিল ২০১৯

ছবি: প্রতিনিধি

‘স্রষ্টার সৃষ্টি সত্য সুন্দরে’ এ শ্লোগানে কুমিল্লার ১৭টি উপজেলার নবীন ও প্রবীণ কবি সাহিত্যিকদের নিয়ে গঠিত সংগঠন ‘কুমিল্লা কবি সাহিত্যিক পরিবার’। এর কর্তৃক আয়োজিত আলোচনা সভা ও সাহিত্য আড্ডা রেইচকোর্স ইস্টার্ণ ইয়াকুব প্লাজা ৫ম তলা শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) বিকাল ৩টায় অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলা একাডেমীর আজীবন সদস্য কবি ফখরুল হুদা হেলাল। কবি মুকুল মজুমদার এর সঞ্চালনা স্বাগত বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানটির আয়োজক কবি ও সাহিত্যিক রানা হাছান।

বিশেষ অতিথি ছিলেন অবসর প্রাপ্ত সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার কবি আব্দুল মান্নান। বক্তব্য রাখেন কবি কিরণ আহমেদ, কবি তাজুল ইসলাম, কবি মামুনুর রশিদ, সাহিত্যিক মনিরুল ইসলাম, কবি রোকসানা সুখী, কবি সুমন সালাউদ্দিন, কবি জাফর ইকবাল, সাংবাদিক বাপ্পি মজুমদার ইউনুস, সাংবাদিক আক্কাস আল মাহমুদ হৃদয়।

এছাড়াও কবিতা আবৃত্তি ও বক্তব্য রাখেন, পর্যায়ক্রমে কবি শিমুল, কবি সামছুন নাহার, গাজী জহিরুল,কবি মনির হোসেন,কবি মোঃ মাসুদ খান, মোঃ ইমাম হোসেন, সিহাব শাহীন, আব্দুল্লাহ আল মামুন  সহ অন্য কবি সাহিত্যিকগণ।

এ সময় বক্তারা বলেন, সাহিত্যের মাঝে আমরা যে বিষয়টা খুঁজি তা হলো রসাস্বাদন। আর রসদান করাই সাহিত্য ও সাহিত্যিকের উদ্দেশ্য। নদী চলতে চলতে প্রসারিত হতে থাকে, তেমনি সাহিত্যও চলতে চলতে একজনের মনের মাধুরী মিশ্রিত রস-বাণী বিশ্বময় ব্যাপ্তি লাভ করে। এ সাহিত্যটা অন্তরের অনুভূতি ও  জীবন-গভীরের গোপন কথা। মুখের ভাষায় যা প্রকাশ করা যায় না, তা প্রকাশ করতে হয় ছবির মাধ্যমে। কবি তিনিই যে বর্তমান ও ভবিষ্যতের কথা বলে যায়, যা বাস্তবরূপে ধারণ আর অঙ্কিত ছবিই মূলত সাহিত্য, যা সবার জন্য সৃষ্টি হয়। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তাঁর সাহিত্য গ্রন্থে বলেন, অন্তরের জিনিসকে বাইরের, ভাবের জিনিসকে ভাষায়, নিজের জিনিসকে বিশ্বমানবের ও ক্ষণকালের জিনিসকে চিরকালের করিয়া তোলার নামই সাহিত্য।

কবি আবৃত্তি ও গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা সাহিত্য আড্ডার মধ্য দিয়ে সন্ধ্যায় ৬টায় উক্ত অনুষ্ঠানটি সমাপ্ত ঘটে।

পরে ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির হত্যাকারীদের দ্রত দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে তিব্র প্রতিবাদে ইস্টার্ণ ইয়াকুব প্লাজার সামনে মানববন্ধন করা হয় এতে অংশগ্রহণ করেন পথচারী ও সাধারণ জনতা ব্যবসায়ীগন।

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: