প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

‘মানুষের ঢল নেমেছে মক্কার বলীর ১৪০তম আসরে’

২১ এপ্রিল ২০১৯ , ০৫:০০:০০

ছবি: প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় ঐতিহ্যবাহী মক্কার বলী খেলার ১৪০তম আসর বসে শনিবার (২০ এপ্রিল)। সকাল থেকে শুরু হয়ে গভীর রাত পর্যন্ত চলবে মেলার কার্যক্রম। উপজেলা জুড়ে বলী খেলা ও বৈশাখী মেলাকে কেন্দ্র করে এলাকার লোকজনের মধ্যে বিরাজ করছে বাড়তি আনন্দ-উৎসাহ। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বলী খেলা দেখতে আসা উৎসুক জনতার পদচারণায় লোকারণ্যে পরিণত হয়েছে উপজেলার মাদারসা মক্কার বাড়ি এলাকা।

ঐতিহ্যবাহী মক্কার বলী খেলাকে সামনে রেখে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে এসেছে হাজারও মৌসুমি ব্যবসায়ী। তারা হরেক পণ্যের পসরা সাজিয়েছেন। মেলায় উপচেপড়া ভিড় করে ক্রেতারা। তবে উৎসবের মূল আকর্ষণ ‘বলী খেলা’।

কক্সবাজারের রামুর দিদার বলী, উখিয়ার শামসু বলী, টেকনাফের আলম বলী, খুলনার শিপন বলী, যশোরের কামাল বলীসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে নামকরা প্রায় অর্ধশত বলী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অংশ নেন। এবারে সাতকানিয়া উপজেলার ঐতিহ্যবাহী মক্কার বলী খেলায় চকরিয়ার বাদশা বলীকে হারিয়ে কক্সবাজারের রামুর দিদার বলী চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। 

খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাতকানিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাসানুজামান মোল্যা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শফিউল কবির, মাদর্শা ইউপি চেয়ারম্যান আ. ন. ম সেলিম চৌধুরী, ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মানিক, সাবেক চেয়ারম্যান নাজমুল আলম চৌধুরী প্রমুখ।

সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ মোবারক হোসেন বিডি২৪লাইভকে বলেন, এটি সাতকানিয়ার ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। মেলা ও বলী খেলা সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

খেলা শেষে চ্যাম্পিয়ন, রানার্স আপসহ প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া বলীদের পুরস্কৃত করা হয়েছে।

জানা গেছে, ১৮৭৯ সালে ইয়াছিন মক্কীর নাতি কাদের বক্স চৌধুরী খাজনা দিতে আসা প্রজা ও এলাকার লোকজনকে আনন্দ দেওয়ার উদ্দেশ্যে সর্বপ্রথম বলী খেলার আয়োজন করেন। এর পর থেকে এটি মক্কার বলী খেলা নামে পরিচিত লাভ করেন।

বিডি২৪লাইভ/টিএএফ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: