প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

‘ওর বুকের পাটা ছিইড়া ফালামু’

২১ এপ্রিল ২০১৯ , ১০:২৬:৫৫

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার ভুইগড়ে রূপায়ন টাউনে জেলা কৃষকলীগের সভাপতি নাজিম উদ্দিনের ক্যাডার বাহিনীর দুই দফা হামলায় শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিবসহ ৪ জনকে মারধরের ঘটনায় দায়ের করা দুটি মামলার ১৩ আসামীর কেউ গ্রেফতার হয়নি। এ নিয়ে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে ভুক্তভোগিসহ রূপায়ন টাউনবাসীর মধ্যে।

শনিবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে স্থানীয় সাংসদ শামীম ওসমান রূপায়ন টাউনে গিয়ে ঘটনার শিকার শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবুল কালাম আজাদ, তার ছোট ভাই শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের কর্মকর্তা আবদুস সালামসহ সেখানকার ফ্ল্যাট মালিকদের উপস্থিতিতে দুঃখ প্রকাশ করেন।

তিনি ঘটনার জন্য দায়ি জেলা কৃষক লীগের সভাপতি নাজিম উদ্দিন ও তার অনুগত বহিরাগত কাউকে রূপায়ন টাউনে প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে দেন।

সাংসদ শামীম ওসমান ফ্ল্যাট বাসিদের উদ্দেশ্যে বলেন, এখন থেকে রূপায়ন টাউনের ফ্ল্যাটের মালিকরাই রূপায়ন টাউনের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করবেন। বহিরাগত কাউকে এখানে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। রূপায়ন টাউনের বাসিন্দারা চাইলে তিনি তাদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করবেন এবং পাশে থাকবেন।

শামীম ওসমান আরও বলেন, ‘আমার মেয়েরা এখানে হাঁটবে থাকবে, এখানে মুরুব্বিরা থাকবে, কোনো বেয়াদব থাকবে না। যদি এই বাসিন্দাদের মধ্যে খারাপ কেউ থাকে, তার নাম শেষ কইরা দিমু, তারে শুদ্ধা নাই করা দিমু আমি। যদি আপনারা চান। আপনারা না চাইলে আমার কিছু করার নাই। আমি আমার কাজ করতেছি, এটা আমার ডিউটি। আপনারদের কাছে আমার অভিযোগ, আপনারা আপনাদের ডিউটি পালন করেন নাই। আপনারা কিন্তু বস্তিতে থাকেন না। সবাই মধ্যবিত্ত, উচ্চ মধ্যবিত্ত ঘরের বাসিন্দা এখানে। এবং ম্যাক্সিমাম লোক শিক্ষিত। একটা লোকের দায়িত্ব হলো না যে, আচ্ছা শামীম ওসমানরে বইলা দেখিতো, আমাদের এলাকায় এই সমস্যাগুলো হচ্ছে, একবার জানাই দেখি তো, লোকটারে টেস্ট করি।’ টেস্ট করতেন, টেস্টও করবেন না? না কাঁনলে মাও দুধ দেয় না মনে রাখবেন।’

নারায়ণগঞ্জে অনেক খেলা হচ্ছে মন্তব্য করে সাংসদ শামীম ওসমান বলেন, ‘প্রত্যেকটা খেলার জবাব আমার কাছে আছে। হাতের মুঠে ডকুমেন্ট আছে। আমি ছাড়ি না। কারণ আমি সম্মানিত লোকের সম্মান নষ্ট করি না। চেষ্টা করি ধৈর্য ধারণ করার।’

স্থানীয়দের আশ্বস্ত করে তিনি বলেন, ‘আমি পরিষ্কার ভাষায় বলে দিতে চাই যারাই এইখানে বাইরের দু চারজন লোক আছেন, আল্লাহর নামে কসম খইয়া বলতাছি, খোদার নামে কসম খাইয়া বলতাছি আমি শামীম ওসমান, এই খানে আইসা যদি কেউ এমন কোনো কর্মকান্ড করে যার কারণে আমার মেয়েরা ভয় পায়- আমি রাস্তায় নামবো কিনা, কোনো মুরুব্বী ভয় পায়- আমি অসম্মানিত হবো কিনা কিংবা কেউ যদি ভয় পায় যে, আমি এই এলাকায় সুন্দরভাবে থাকতে পারবো কিনা- আমি তার বুকের মধ্যে হাত দিয়া বুকের পাটা ছিইড়া ফালামু, তাকে ছাড়বো না। এটা আমার ওয়াদা যদি আমি বাঁইচা থাকি।’

নাজিম উদ্দিনকে সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়ে সাঁটানো ফেস্টুন ব্যানার দেখিয় শামীম ওসমান বলেন, ‘এই পোষ্টার ফোষ্টার সব নামায় ফালান, এই গুলার দরকার নাই, এই গুলা আমাদের কোনো কাজে লাগবে না। অনেকেই আছে আমাদের নাম ভাঙ্গাইয়া অনেক কিছু কইরা ফালায়, আমরা জানিও না। তিন পুরুষ ধরে আমরা নারায়ণগঞ্জে কাজ করতাছি। কোনো অন্যায়ের কাছে মাথা নত করবো না, সে সরকার হউক, প্রশাসন হউক, পুলিশ হউক, আমি ন্যায্য কথা বলতে আসছি। বলবো।’

বিডি২৪লাইভ/আরআই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: