প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

বাল্যবিয়ে-যৌতুক বিরোধী সমাজ গড়ার লক্ষে খেলা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত: ০৮:৩৫ অপরাহ্ণ, ২২ এপ্রিল ২০১৯

ছবি: প্রতিনিধি

শেরপুরে নালিতাবাড়ীতে বাল্যবিয়ে ও যৌতুকমুক্ত সমাজ বিনির্মাণে সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে নারী ফুটবল খেলার আয়োজন করা হয়।

সোমবার (২২ এপ্রিল) বিকেলে নালিতাবাড়ী তারাগঞ্জ সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সচেতনতামুলক নারী ফুটবল খেলাটির উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আরিফুর রহমান।

নালিতাবাড়ীর কাকরকান্দি কিশোরী ক্লাব বনাম শ্রীবরদীর ভায়াডাঙ্গা কিশোরী ক্লাবের মধ্যে খেলাটি অনুষ্ঠিত হয়। এতে দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম মিনিটে শ্রীবরদী ভায়াডাঙ্গা কিশোরী ক্লাব মিডফিল্ডার স্মৃতি আক্তারের গোলে নালিতাবাড়ীর কাকরকান্দি কিশোরী ক্লাবকে পরাজিত করে।

নালিতাবাড়ী উপজেলা প্রশাসন, নালিতাবাড়ী পৌরসভা, প্রেসক্লাব নালিতাবাড়ী, শেরপুর জেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম, ব্র্যাক কিশোর-কিশোরী উন্নয়ন কর্মসূচি এবং বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আইইডির সহায়তায় নাগরিক প্ল্যাটফরম জনউদ্যোগ শেরপুর জেলা কমিটি এ নারী ফুটবল খেলার আয়োজন করে। খেলা শুরুর আগে বাল্যবিয়ে ও যৌতুক বিরোধী এক শপথ অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় নারী খেলোয়াড়রা ছাড়াও কেলা দেখতে আসা দর্শক-সমর্থক এবং উপস্থিত সুধীবৃন্দ মুষ্টিবদ্ধ ডান হাত সামনে উচিয়ে বাল্যবিয়ে ও যৌতুক প্রতিরোধের দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। শপথ বাক্য উচ্চারণ করে প্রায় পাঁচ শতাধিক
উপস্থিতির সকলেই বলেন-‘বাল্যবিয়ে করবো না, সইবো না, মানবো না। যৌতুক দেবোনা, নেবোনা, মানবো না। লেখাপড়া শিখবো। নিজেকে গড়বো। বাল্যবিয়ে ও যৌতুক সম্পর্কে নিজেরা সচেতন হব, অপরকে সচেতন করতে সচেষ্ট থাকব। নিজেকে যৌতুক ও বাল্যবিয়ে থেকে মুক্ত রাখবো। সমাজকে বাল্যবিয়ে ও যৌতুক মুক্ত করতে সাধ্যমতো ভুমিকা রাখতে চেষ্টা করবো। দেশকে জানবো, দেশকে গড়বো। সবাই সবার জন্য কাজ করবো।’ ইউএনও মো. আরিফুর রহমান শপথ বাক্য পাঠ করান।

পরে বাল্যবিয়ে ও যৌতুকের ভয়াবহতা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, নালিতাবাড়ী পৌরসভার মেয়র মো. আবুবকর সিদ্দিক, নব-নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোকছেদুর রহমান লেবু, প্রেসক্লাব সভাপতি এমএ হাকাম হীরা, জেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ ভট্টাচার্য, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশন সভাপতি মানিক দত্ত, ব্র্যাক জেলা প্রতিনিধি মো. আতাউর রহমান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জনউদোগ শেরপুর জেলা কমিটির আহ্বায়ক শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ। খেলা শেষে দুই দলের খেলোয়াড়দের প্রত্যেককে স্থানীয় রুনা ইলেক্ট্রনিক্সের সৌজন্যে মার্সেল এলইডি বাতি, আইইডি’র সৌজন্যে ফুটবল উপহার ও প্রাইজমানি প্রদান করা হয়।

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: