প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

কেমন কাটছে শাবানার জীবন

২৩ এপ্রিল, ২০১৯ ২০:১৭:১৬

ছবি: মিশা সওদাগরের ফেসবুক থেকে নেয়া।

আরেফিন সোহাগ: বাংলা সিনেমার নক্ষত্র জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত চিত্রনায়িকা শাবানা ১২ বছর আগেই চলচ্চিত্রকে বিদায় জানিয়েছেন। বর্তমানে নিউইয়র্কে প্রবাসজীবন কাটাচ্ছেন তিনি।

দীর্ঘ সময় পর্দার আড়ালে থাকলেই দর্শকের হৃদয়ে আছেন শিরোমণি হয়ে। গত ২০ এপ্রিল খ্যাতিমান অভিনেতা ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর তার নিজের ফেসবুক আইডিতে একটি সেলফি আপলোড করেন। সেখানে দেখা মিলেছে কিংবদন্তি শাবানার।

ছবিটি আপলোড করে মিশা লিখেছেন, ‘দ্য লিজেন্ড, দ্য লেসন’।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) মিশা সওদাগরের সাথে কথা হয় বিডি২৪লাইভ’র স্টাফ করেসপন্ডেন্ট আরেফিন সোহাগের। আলাপচারিতায় তিনি বলেছেন শাবানার প্রবাসজীবন কেমন কাটাচ্ছেন সে সম্পর্কে।

শাবানা ম্যাডাম এখন কেমন আছেন? উত্তরে মিশা বলেন, উনি (শাবানা) খুবই ভালো আছেন। পরিবার নিয়ে বেশ আনন্দে আছেন। সব সময় হাসি-খুশি থাকেন তিনি। তিনি সব সময় সবার জন্য দোয়া করেন। সবাই যেন ভালো থাকে সেই কামনা করে সব সময়। দেশের মানুষের জন্য দোয়া করেন।

ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে তিনি (শাবানা) দেশে ফিরবেন কিনা এ বিষয়ে জানতে চাইলে মিশা বলেন, না, আপাতত তিনি দেশে আসছেন না। আমার সাথে তার পারিবারিক সম্পর্ক। আমাদের মধ্যে সব সময় যোগাযোগ হয়। আর শাবানা চাননা সংবাদ শিরোনাম হতে। তিনি সব সময় মিডিয়ার বাহিরে থাকতে চান।

প্রসঙ্গত, শিশুশিল্পী হিসেবে নতুন সুর চলচ্চিত্রে আবির্ভাব ঘটে শাবানার। পরে ১৯৬৭ সালে চকোরী চলচ্চিত্রে চিত্রনায়ক নাদিমের বিপরীতে প্রধান নারী চরিত্রে অভিনয় করেন। শাবানার প্রকৃত নাম রত্না। চিত্রপরিচালক এহতেশাম চকোরী চলচ্চিত্রে তার শাবানা নাম প্রদান করেন।

তার পূর্ণ নাম আফরোজা সুলতানা। পৈতৃক বাড়ি চট্টগ্রাম জেলার রাউজান উপজেলার ডাবুয়া গ্রামে। তিনি ৩৬ বছর কর্মজীবনে ২৯৯টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ষাট থেকে নব্বই দশকে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে ছিলেন এই অভিনেত্রী। ২০০০ সালে রুপালি জগৎ থেকে নিজেকে আড়াল করে ফেলেন এ নায়িকা।

দীর্ঘ কর্মজীবনে তিনি অভিনয়ের জন্য ৯ বার ও প্রযোজক হিসেবে ১ বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। ২০১৭ সালে আজীবন সম্মাননায় ভূষিত হন।

বিডি২৪লাইভ/এএস

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: