প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

গরু চোর অপবাদ দিয়ে মারধরের অভিযোগ (ভিডিও)

২৫ এপ্রিল ২০১৯ , ১২:৪৭:০০

ছবি: ভিডিও থেকে নেওয়া

গরু চোর সন্দেহ দুই ব্যক্তিকে বাড়ি থেকে ধরে এনে বেধড়ক পেটানোর অভিযোগ উঠেছে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) এক সদস্যের বিরুদ্ধে। গরু চুরির মামলায় মারধরের শিকার ওই দুই জন বর্তমানে জেল হাজতে আছেন।

মারধরের শিকার ওই দু’জন হলেন, উপজেলার ওস্থি ইউনিয়নের বড় গ্রামের অটোরিকশাচালক বাদল মিয়া ও কুমিল্লার হিমেল মিয়া। ইউপি সদস্য আবুল কাশেম ওস্থি ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সদস্য।

ঘটনাটি ঘটে গত ১৩ এপ্রিল গফরগাঁওয়ের উস্তি ইউনিয়নের বড় গ্রামে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পাগলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফয়জুর রহমান বলেন, ওই দুই যুবককে মারধর করে গরু চোর হিসেবে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন আবুল কাশেম।

তাঁদের নামে এর আগে থানায় গরু চুরির আর কোনো মামলা পাওয়া যায়নি। মারধরের ব্যাপারে একটি অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এ ঘটনায় বুধবার (২৩ এপ্রিল) রিকশা চালক বাদলের স্ত্রী রাবেয়া আক্তার গফরগাঁওয়ের পাগলা থানায় কাশেমের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা তিনজনকে আসামি করে মামলা করেন।

এর আগে গত শনিবার (১৩ এপ্রিল) মারধরের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়লে সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভ ও বিতর্কের সৃষ্টি হয়।

স্থানীয়দের দাবি, বাদল ও হিমেল গরু চোর নয়। মূলত বিগত ইউপি নির্বাচনের সময় কাশেমের পক্ষ না নেওয়ায় বাদল ও হিমেলকে মারধর করেছেন তিনি।

দুইজনকে মারধরের বিষয়টি স্বীকার করে ইউপি সদস্য কাশেম বলেন, ১৩ এপ্রিল ভোরে ওই দুই জনকে গরুসহ আটক করে আমার কাছে নিয়ে আসে। বিক্ষুব্ধ জনতাকে শান্ত করার জন্য চর-থাপ্পড় দিয়েছি।

তবে ইউপি নির্বাচনের সময় পক্ষে না নেওয়ার জন্য মারধর করেছেন কিনা, জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। এগুলো মিথ্যা কথা।

মামলার এজাহারে জানা যায়, রাবেয়া আক্তারের স্বামী বাদল মিয়াকে রাতে ঘুম থেকে ডেকে নিয়ে পাল্টিপাড়া রমজান শেখের বাড়ির সামনে নিয়ে যান আসামিরা।

সেখানে তাঁকে দেখা মাত্র গরু চোর আসছে বলে ধরে রশি দিয়ে হাত-পা বেঁধে গাছের ডাল দিয়ে অমানবিকভাবে মারধর করা হয়। রাবেয়া আক্তারের স্বামী একজন অটোরিকশা চালক, তিনি চোর নন বলেও ওই মামলায় উল্লেখ্য করেন রাবেয়া।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

বিডি২৪লাইভ/এইচকে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: