প্রচ্ছদ / ক্যাম্পাস / বিস্তারিত

বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে অবমাননাকারীদের বিচার চায় ছাত্রলীগ

১০ মে ২০১৯ , ০৭:৫০:০০

ছবি: প্রতিনিধি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবমাননাকারী দুই শিক্ষার্থীর বিচার চেয়ে প্রশাসন বরাবর অভিযোগপত্র দায়ের করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ।

শুক্রবার (১০ মে) বিকালে অভিযুক্ত দুই শিক্ষার্থীর বিচার চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বরাবর এ অভিযোগপত্র দায়ের করেছে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জুয়েল রানা ও সাধারণ সম্পাদক এস এম আবু সুফিয়ান চঞ্চল।

অভিযুক্ত দুই শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের (৪৭ ব্যাচ) ফাহিম হোসেন ও নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের (৪৭ ব্যাচ) ক্যামেলিয়া শারমিন চূড়া।

লিখিত অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, ফাহিম হোসেন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয় টায় তার নিজের ফেইসবুক আইডি থেকে বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে অসম্মান করে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ও ভাষণের ছবি বিকৃত করে প্রচার করে।

ফাহিম হোসেনের আইডিতে দেখা যায়, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের ছবি এডিট করে পোষ্ট করা হয়েছে ‘দুঃখ - ভারাক্রান্ত মন নিয়ে সেট ম্যেনু প্লেটার নিয়ে বসেছি- JUCC Iftar, আলুর চপ কই? আজকে বানাই নাই, আজ দুঃখ- ভারাক্রান্ত মন নিয়ে ইফতারের সামনে হাজির হয়েছি।’

অন্যদিকে ক্যামেলিয়া শারমিন চূড়া বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবমাননা করে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য প্রচার করে। তাই জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ অভিযুক্ত দুইজনকে দ্রুত বিচারের আওতায় এনে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কারের দাবি জানাচ্ছে।

এ বিষয়ে ফাহিম হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এই ট্রলটি আমি তৈরি করি নি। লেম জোক্স আ্যসোসিয়েশন নামক একটি ফেসবুক গ্রুপ থেকে ভুলবসত আমি আপলোড করেছি, আমি এজন্য দুঃখ প্রকাশ করছি।

এদিকে বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের ছবি বিকৃত করে ট্রল করায় সাধরণ শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতা কর্মীদের মধ্যে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে।

এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জুয়েল রানা বলেন, অভিযুক্ত দুই শিক্ষার্থীর বিচার চেয়ে সাংগঠনিকভাবে প্রশাসনের কাছে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছি। পরবর্তীতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সঙ্গে পরামর্শ করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে বিকল্প সিন্ধান্ত নিবো।

সাধারণ সম্পাদক এস এম আবু সুফিয়ান চঞ্চল বলেন, এ ধরনের বিকৃত, অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। সেই সাথে অতিদ্রুত অভিযুক্তদের শাস্তির আওতায় আনার জোর দাবি করছি।

প্রক্টর আ ম স ফিরোজ উল হাসান বলেন, ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে একটি অভিযোগপত্র হাতে পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: