প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

সুষ্ঠু সমাধানের প্রত্যাশা

রাস্তায় ধান ফেলে আগুন দিয়ে বিক্ষোভ

প্রকাশিত: ০৭:৫১ অপরাহ্ণ, ১৯ মে ২০১৯

ছবি: প্রতিনিধি

কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ধান কেনার দাবিতে রাস্তায় ধান ফেলে আগুন দিয়ে বিক্ষোভ করেছেন কৃষকরা।

রোববার (১৯ মে) সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত উপজেলার গোবিন্দপুর চৌরাস্তায় গোবিন্দপুর কৃষক অধিকার রক্ষা সংগ্রাম কমিটির আহ্বায়ক আলাল মিয়ার নেতৃত্বে এ এলাকার কৃষকরা এই কর্মসূচি পালন করা হয়।

এ সময় আন্দোলনে অংশ নেওয়া কৃষকরা উৎপাদিত ধানের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সরাসরি তাঁদের কাছ থেকে ধান কেনার দাবি জানান।

‘কৃষক বাঁচাও, দেশ বাঁচাও’ স্লোগানে অনুষ্ঠিত এই কর্মসূচির নেতৃত্বে থাকা আলাল মিয়া বিডি২৪লাইভকে বলেন, প্রতি মণ ধান উৎপাদন করতে ৮৫০ টাকা থেকে ৯০০ টাকা খরচ। সে চিন্তা করে সরকার প্রতি মণ ধানের বাজার মূল্য ১০৪০ টাকা নির্ধারণ করে দিলেও বাজারে প্রতি মণ ধান ৫০০ টাকা থেকে ৫৫০ টাকা দরে বিক্রি করতে হচ্ছে। এতে কৃষকের লোকসান দিতে দিতে তাঁদের মেরুদণ্ড ভেঙ্গে যাচ্ছে। যত দ্রুত সম্ভব এর সুষ্ঠু সমাধান হওয়া উচিত।

স্থানীয় কৃষক আলী হোসেন বলেন, আমরা যা উৎপাদন করি তা বিক্রি করতে গেলেই লোকসান হয় আবার আমাদের হাত থেকে কোন পণ্য চলে গেলে, সেটিই কিনতে হয় বেশি দামে।

গিয়াস উদ্দিন নামে এক কৃষক বলেন, সরকার ধানের দাম ১০৪০ টাকা নির্ধারণ করলেও আমরা সে দামে কোন ধান বিক্রি করতে পারছি না। এ রকম হলে আমরা কার কাছে যাব?

আন্দোলনকারীরা জানান, কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনার কথা থাকলেও ৬টি মিলের মালিকরা তা মানছেন না। তাঁরা কৃষকদের কাছ থেকে ধান না কিনে ফড়িয়াদের মাধ্যমে ধান কিনছেন। এতে লাভবান হচ্ছেন মধ্যস্বত্বভোগীরা।

হোসেনপুর উপজেলা ধান-চাল সংগ্রহ কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমল কুমার ঘোষ জানান, বস্তার অভাবে এখনও ধান সংগ্রহ করা যাচ্ছে না, তবে মিলারদের মাধ্যমে চাল সংগ্রহ শুরু হয়েছে।

বিডি২৪লাইভ/এইচকে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: