প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

হানিমুন থেকে ফিরে স্বামীর পর এবার শ্রাবন্তীর মাথায় হাত!

প্রকাশিত: ১০:৫৪ অপরাহ্ণ, ২০ মে ২০১৯

ছবি: ইন্টারনেট

টলিগঞ্জের মিষ্টি মেয়ে শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। এ সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় নায়িকা তিনি। কিছুদিন আগে ফের সাত পাকে বাঁধা পড়েছেন এই টলি অভিনেত্রী।

গত ১৯ এপ্রিল অর্থাৎ ৪ঠা বৈশাখ পঞ্জাবি রীতিতে সাত পাকে বাঁধা পড়েছেন শ্রাবন্তী। প্রথমে পরিচালক রাজীব চ্যাটার্জি, এরপর মডেল কৃষাণ ব্রজের সঙ্গে বিয়ে ভাঙার পর এবার রোশন সিং নামে এক কেবিন ক্রকে বিয়ে করেছেন তিনি।

বিয়ের সকল কার্যক্রম শেষ রোশন ও শ্রাবন্তী দুজনেই যে যার নিজের কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। বিয়ের পর থেকে সেভাবে আর শ্রাবন্তী ও রোশনকে একসঙ্গে দেখা যায়নি।

তবে এ মাসের ১০ তারিখে হানিমুন করতে ইন্দোনেশিয়ায় উড়ে গিয়েছিল এ জুটি। সেখানে নতুন দম্পতির আমুদে সময় কেটেছে তা বোঝা গিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের পোস্ট করা অন্যান্য ছবিতে।

হানিমুন থেকে ফিরেই সচেতন নাগরিক হিসেবে ভোটটাও দিয়েছেন শ্রাবন্তী ও রোশন। এদিকে বিয়ের কয়েকদিনের মাথায় রোশন সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি পোস্ট করেছেন, তা নিয়েই নেটিজেনরা কথা বলতে শুরু করেছেন। ছবিটি ঘিরে আরও তৈরি হয়েছে জল্পনা!

আসলে সেই ছবিটি রোশনকে মাথায় হাত দিয়ে পোজ দিতে দেখা গিয়েছে। আর এরপরেই তীব্র কটাক্ষ শুনতে হয়েছে শ্রাবন্তী স্বামীকে।

এদিকে রোশনের এমন ছবির পরপরই শ্রাবন্তীর একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। যেখানে শ্রাবন্তীকেও মাথায় হাত দিয়ে পোজ দিতে দেখা গিয়েছে।

শ্রাবন্তীর এমন ছবি ভাইরাল হওয়ার পর ভক্তদের মনে নতুন প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে। সকলের মনে একই প্রশ্ন, কি হচ্ছে শ্রাবন্তীর নতুন সংসারে?

প্রসঙ্গত, শ্রাবন্তীর স্বামী রোশন একটি বিমান সংস্থার কেবিন ক্রু সুপারভাইজার। পাশাপাশি একটি জিমের মালিকও তিনি। বিয়ের পর আপাতত শ্রাবন্তী-রোশন থাকছেন তাদের নতুন কেনা আরাবানার ফ্ল্যাটে।

এর আগে শ্রাবন্তীর দুবার বিয়েবিচ্ছেদ হয়।২০০৩ সালে পরিচালক রাজীব বিশ্বাসের সঙ্গে শ্রাবন্তীর প্রথম বিয়ে হয়। তাদের ঘরের সন্তান ঝিনুক। রাজীবের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর মডেল কৃষ্ণ ব্রজের সঙ্গে শ্রাবন্তীর প্রেম হয়। বিয়েও করেন তারা। গত জানুয়ারিতে কৃষ্ণের সঙ্গেও বিচ্ছেদ হয়ে যায় শ্রাবন্তীর।

বিডি২৪লাইভ/এআইআর

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: