প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

একটা ধাপ এগিয়েছি আমি: শার্লিন ফারজানা 

প্রকাশিত: ০৫:১৬ অপরাহ্ণ, ২১ মে ২০১৯

ছবি: ইন্টারনেট থেকে নেয়া।

ক্যারিয়ারের শুরুটা মডেলিং দিয়ে হলেও সিনেমাকে লক্ষ্য করেই সামনের দিকে এগিয়ে চলেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী শার্লিন ফারজানা। ২০০৮ সালে সুন্দরী প্রতিযোগীতা ‘ইউ গট দ্য লুক’ বিজয়ী হয়ে শুরু করেছিলেন পথচলা। এরপর বিজ্ঞাপন ও নাটকে অভিনয় করে হয়েছেন প্রশংসিত ও জনপ্রিয়। অভিনয় করেছেন চলচ্চিত্রেও। ঈদের পরই মুক্তি পেতে যাচ্ছে তার চলচ্চিত্র ‘উনপঞ্চাশ বাতাশ’।

সম্প্রতি ঈদকে সামনে রেখে একটি নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। নাটকের নাম ‘ভালোবাসার নিলাম’। এহসানের পরিচালনায় এই নাটকে শার্লিনের সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন জোভান। এই নাটকের মাধ্যমে প্রথমবার একসাথে জুটি বেঁধেছেন তারা। অনেকদিন পর নাটকে অভিনয় করা প্রসঙ্গে শার্লিন বলেন, যখন পরিবেশ ভালো লাগে তখন আসলে কাজ কাজের মত লাগে না। তখন কাজ প্রকৃতিবান্ধব হয়ে যায়,ভালো লাগা কাজ করে। এক কথায় স্পষ্টভাবে যদি বলি তাহলে বলবো অনেকদিন পর কাজ করে ভালো লেগেছে। ঈদের জন্য এই একটি কাজই করেছি। যেহেতু ঈদের পরই আমার ছবি মুক্তি পাচ্ছে তাই আমি চাইছি না ঈদের আর কোন কাজ করতে। আমার অল্প কিছু হলেও যারা দর্শক আছে তারা আমাকে হলে গিয়েই দেখুক।

এদিকে বেশ কয়েকবার তার অভিনীত চলচ্চিত্রের মুক্তির তারিখ পিছিয়েছে। তবে এবার উৎসবের বাইরে ফাঁকা সময়টাকেই তারা বেছে নিচ্ছেন ছবির মুক্তির তারিখ হিসেবে। ঈদের পরই ছবিটি মুক্তি পাবে। এ নিয়ে তিনি বলেন, বেশ কয়েকবার ছবিটি মুক্তির তারিখ পিছিয়েছে। আসলে এটা যেই ঘরানার ছবি সেই ধরণের দর্শক ও চাহিদা তৈরি করতে চেয়েছেন ছবিটির পরিচালক। যেই সময়টাতে অন্যান্য ছবির প্রতিযোগিতা থাকবে না,দর্শকরা ছবিটি হলে গিয়ে দেখবে। তাহলে একটা শ্রেণীর দর্শক হয়তো আমরা পাবো। শাকিব খানের দর্শক আর আমাদের দর্শক তো এক না, তাই একটা সেইফ সময়ে আমরা এটা মুক্তি দিতে চাচ্ছি। এই ছবিতে আমি এবং আমার সহশিল্পী দুজনেই নতুন তাই ঈদে মুক্তির ঘোষণা দিয়ে কোনো ঝুঁকি নিতে চান নি পরিচালক। ঈদের পর ফাঁকা সময়ে ছবিটা মুক্তি দেওয়া হবে। আগস্টেই ছবিটি মুক্তি দেওয়া হবে আমি যতদূর জানি।

পরিপূর্ণ আকারে আমার প্রথম চলচ্চিত্র ‘উনপঞ্চাশ বাতাস’। আর ছবিটাতে কাজের অভিজ্ঞতা যদি বলি, আমি তো কম কাজ করি তাই শেখার জায়গাটাও খুব কম। সেই হিসেবে ছবিটা আমার জন্য পরিপূর্ণ একটা ওয়ার্কশপ ছিল। ছবির নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বল হচ্ছে এমন নির্মাতা যার সাথে কাজ করতে পারার অভিজ্ঞতা মানেই হচ্ছে একটা শিক্ষা সফর। সেই হিসেবে আমি বলবো একটা ধাপ এগিয়েছি আমি। আমার লক্ষ্যই হচ্ছে সিনেমা, সিনেমাতেই নিজেকে প্রতিষ্ঠিত দেখতে চাই। এমনটাই জানালেন উনপঞ্চাশ বাতাস ছবির নায়িকা।

ছোট পর্দায় অভিনয় নিয়ে জানান, আমার মনে হয় যে আমি চলচ্চিত্রেই ঠিক আছি। আর শিল্প হচ্ছে চর্চার বিষয়। এরমধ্যে যদি একেবারেই অভিনয় না করি তাহলে তো চর্চাটাই থাকবে না। মাঝেমধ্যে হয়তো ছোট পর্দায় দেখা যাবে।  বাংলাদেশের যারা অভিনয়শিল্পী রয়েছেন আমি তাদেরকে স্যালুট জানাই। কারণ তারা কিভাবে মাসের ত্রিশ দিন কাজ করে আমি জানিনা। দুইদিনে কিংবা একদিনে একটা নাটক হয় যেটা আসলে চলচ্চিত্রের গল্প হতে পারে। আমি ঐ লোডটা নিতে পারিনা। অনেক কষ্ট হয়। বলা যায় এটা আমার একটা সমস্যা। চলচ্চিত্রে যেটা হয়, অনেকদিন একসাথে থাকা হয়, ক্যারেকটারটা ডেভেলপমেন্ট হয়! ওটাতে অনেক স্বাচ্ছন্দবোধ করি।

অনেকদিন টেলিভিশন নাটকে অভিনয় করেছেন,প্রশংসাও কুড়িয়েছেন। এখন নিজেকে পুরোপুরি থীতু করতে চাচ্ছেন সিনেমাতে। এর বাইরেও তো অনলাইন প্ল্যাটফর্ম রয়েছে যেখানে ওয়েব কন্টেন্ট নির্মাণ হচ্ছে সিনেমার আদলে। খুব সহজেই এখন ইউটিউবে নাটক কিংবা সিনেমা দেখা যাচ্ছে। এতে করে  টেলিভিশনের জনপ্রিয়তা কমছে নয় কি? এমন প্রশ্নে তিনি জানান, না তেলিভিশনের জনপ্রিয়তা কখনওই কমবে না। কারণ অনলাইনে ইউটিউব বা অন্যান্য যে প্লাটফর্ম বা সংস্থা তৈরি হয়েছে তা খুব দ্রুতই ক্র্যাশ করবে। কারণ খুবই অপরিকল্পিতভাবে এগুলোকে ডেভেলপড করা হচ্ছে। কোনো জিনিস যখন আনপ্ল্যানড ওয়েতে গ্রো করে তখন সেটা বেশিদিন সাসটেইন করে না। টেলিভিশন হচ্ছে এমন একটা মাধ্যম যেটা বাড়িতে আমরা যখন ইচ্ছা হাতের নাগালেই পাচ্ছি। তবে ইউটিউব বলেন আর যা-ই বলি ফ্রিতে তো পাচ্ছিনা। টেলিভিশনের জয়জয়কার সারাজীবনই থাকবে।

উল্লেখ্য, অভিনয়ের পথচলায় শার্লিন ফারজানা নিজেকে একজন অভিনেত্রী হিসেবেই প্রতিষ্ঠিত করে তুলছেন। ২০০৮ সালে সুন্দরী প্রতিযোগীতা থেকে বের হয়ে বেশ কিছু নামীদামি ফ্যাশন হাউজের মডেল হয়ে নিজের উপস্থিতি প্রকাশ করেছেন। কাজ করেন বেশ কিছু বিজ্ঞাপনের মডেল হিসেবে। এরপর অমিতাভ রেজা চৌধুরীর ‘গ্রামীণফোন’ ও গাজী শুভ্রর ‘সিলন চা’ এর বিজ্ঞাপনের মডেল হয়ে রীতিমত নতুন করে আলোচনায় চলে আসেন তিনি।

বিডি২৪লাইভ/এএস

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: