প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

ধানখেতে আগুন লাগার ঘটনা বাংলাদেশের নয় ভারতের: হানিফ

প্রকাশিত: ০৬:০৯ অপরাহ্ণ, ২৩ মে ২০১৯

ছবি: ইন্টারনেট

কৃষকের ধানখেতে আগুন দেওয়ার যে ঘটনা ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে সেটা বাংলাদেশের কোনও ঘটনা নয় বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ।

আজ বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ‘শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও নারীর অগ্রযাত্রায় সমৃদ্ধ বাংলাদেশ : শেখ হাসিনার অবদান’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মাহবুব-উল আলম হানিফ।

মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র এখনও থামেনি। সুযোগ পেলেই তারা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হচ্ছে। সর্বশেষ তারা ধানখেতে আগুন দেওয়া নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে।

মাহবুবউল আলম হানিফ আরও বলেন, ‘বগুড়ায় কৃষকের ধানখেতে আগুন দেওয়ার যে ঘটনা ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে সেটা বাংলাদেশের কোনও ঘটনা নয়। ভারতের পাঞ্জাবের একটি গমখেতে অনেক আগে আগুন দেওয়া হয়েছিল। সেই আগুনের ছবি ফেসবুকে পেস্ট করে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।’ আর জুটমিল শ্রমিকদের কীভাবে খুলনার একজন বিএনপি নেতা উসকিয়ে দিয়েছেন তা সবার জানা বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ধানখেতে আগুন লাগার অপপ্রচার যারা চালাচ্ছে এবং পাটকল শ্রমিকদের যারা উসকিয়ে দিচ্ছে তাদের গ্রেফতার করে অবিলম্বে শাস্তির ব্যবস্থা করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানান আওয়ামী লীগের এই নেতা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে নারীরা অনেক দূর এগিয়ে গেছে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমাদের দেশে প্রধানমন্ত্রী নারী, বিরোধীদলীয় নেতা নারী, স্পিকার নারী, উপনেতা নারী। এখন শুধু বাকি আছে রাষ্ট্রপতি পদটা। সেটাও দাবি করছেন আজকের নারীরা।’

আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক সুলতানা শফির সভাপতিত্বে সেমিনারে মূলপ্রবন্ধ পাঠ করেন অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন।

সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, মহিলা বিষয়ক সম্পদক ফজিলাতুন্নেছা ইন্দিরা, কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী কমিটির সদস্য নুরুল ইসলাম ঠান্ডু, সাবেক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, মহিলা শ্রমিক লীগের সভাপতি রওশন জাহান সাথী প্রমুখ।

বিডি২৪লাইভ/এআইআর

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: