প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

শওকত আলী ইমন ফিচারিং আসিফ প্রজেক্টের

২৭ আগস্ট, ২০১৫ ০১:৫৭:৫২

বিনোদন প্রতিবেদক:

১৯৯৭ সালের এক সন্ধ্যায় গিটারিস্ট পিন্টু ভাই আমাকে নিয়ে গেলেন সঙ্গীত পরিচালক শওকত আলী ইমন ভাইয়ের কাছে। বললেন- ছেলেটা আমার কুমিল্লার,অনেক ভালো গান করে, আপনার কাছে দিয়ে গেলাম। সিনেমার কাজে ইমন ভাই খুবই ব্যস্ত, তারপরও তিনি আমাকে সময় দিলেন। কী-বোর্ড বাজিয়ে আমার গান শুনলেন, বললেন সব ঠিক আছে,শুধু আবেগটা নেই, এটাও হয়ে যাবে । কাল থেকে আসিফ আমার সাথেই কাজ করবে।

ইমন ভাইয়ের সাথে এ্যাসিস্টেন্ট হিসেবে মার্চ করা শুরু হল। সারাদিন উনার সাথে থাকা। গান তৈরী করা থেকে শুরু করে ষ্টুডিও পর্বের সব কাজে আমি থাকতাম ছায়ার মত, কাজ শেষে রাতে নামিয়ে দিতেন রামপুরার বাসায়। আমাকে কি করতে হবে বুঝিয়ে দিলেন তিনি। সিনিয়র এবং অভিজ্ঞ শিল্পীরা কি ভাবে গান করেন, সুর ,উচ্চারণের স্পষ্টতা, তাল লয় ছন্দ, মাইক্রোফোনের ব্যবহার, গান ধরা,গান ছাড়া, সেই সাথে আবেগ মিশ্রিত করা। নানান টেকনিক্যাল ব্যাপার শিখতে হয়েছে।

উনি আমাকে সূযোগ দেন রাজা নাম্বার ওয়ান ছবিতে প্রথম প্লে-ব্যাকের। ইমন ভাইয়ের সুরে টানা চব্বিশ টি প্লে-ব্যাকের পর আবেগ গিয়ে পড়লো- ও প্রিয়ার উপর । মাঝখানে পেরিয়ে গেছে সতেরোটি বছর। অনেক কাজ হওয়া উচিত ছিলো উনার সাথে, যুক্তিতে যাবোনা, ভাগ্যে ছিলোনা কাজ হয়নি। ইমন ভাইয়ের মত দেশসেরা কম্পোজারের তৈরী করা গায়ক আমি, আর আমাকে ব্যবহার করেছে ইন্ডাস্ট্রি, এটা দুজনের পক্ষেই মেনে নেয়া কষ্টকর ছিলো।

একবছর আগের পরিকল্পনা, এখন কাজ শুরু শওকত আলী ইমন ফিচারিং আসিফ প্রজেক্টের । প্রাথমিক ভাবে আমরা চারটি গান করবো। ইমন ভাই আর আমার সেরা কাজ গুলো হবে এ প্রজেক্টে। ইমন ভাই সম্বন্ধে বেশী বললে আবার উনি বিগড়ে যেতে পারেন, মেজাজী মানুষ। শুধু আমার শ্রোতাদের বলতে চাই, অপেক্ষায় থাকুন, ঝড়ো হাওয়া বইছে , ঝড়ের পূর্বাভাস দিয়ে রাখলাম । জয়তু শওকত আলী ইমন ভাই ।

সংগ্রহীত: আসিফ ফেইসবুক পেইজ

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: