ঢাকা, রবিবার, ১৯ মে, ২০১৯

জুলফিকার আলী ভূট্টো

নীলফামারী প্রতিনিধি

ছাদ বাগান করে সফল স্কুল শিক্ষক

২১ এপ্রিল, ২০১৯ ০২:০০:০০

নীলফামারীর ডোমার বিদ্যালয়ের ছাদে বাগান করে সফল হয়েছেন সহকারি শিক্ষক (কৃষি শিক্ষা) সুকুমার রায়। ডোমার উপজেলার পাঙ্গা মটুকপুর ইউনিয়নের পাঙ্গাঁ বালিকা বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান ভবনের ছাদে নিজ উদ্যোগে গড়ে তোলা নানান জাতের ফল, ফুল ও তরকারির বাগান দেখতে ওই বিদ্যালয়ের ছাদে ভিড় জমাচ্ছেন অনেকে।

শহরে ছাদ বাগানের কদর থাকলেও মফস্বল এলাকায় ছাদ বাগান তৈরী করার কেউ চিন্তাও করেনা। স্কুল শিক্ষক সুকুমার রায়ের বানানো ছাদ বাগান দেখে অনেক বিদ্যালয়ের শিক্ষকই তাদের বিদ্যালয়ের ছাদে বাগান তৈরীতে উৎসাহী হচ্ছেন। বিদ্যালয় ছুটির পর অবসর সময়ে তিনি নিজেই বাগানের পরিচর্জা করে থাকেন।

ছাদ বাগান তৈরীর ব্যাপারে শিক্ষক সুকুমার রায় জানান, শখের বশে বিদ্যালয় ভবনের ফাঁকা ছাদে কিছু করার পরিকল্পনা করি। প্রথম পর্যায়ে বিভিন্ন প্রজাতির ফুলের চারা টপের মধ্যে লাগিয়ে ছাদের সৌন্দর্য্য মন্ডিত করি। পরে পর্যাক্রমে আম, লিচু, হাইব্রীট টমেটো, বেগুন, লাউ, সিমসহ মৌসুমী ফল ও তরিতরকারীর গাছ লাগিয়ে সফল হই।

পরে আমার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তরনী কান্ত রায়সহ সহকর্মী ও শিক্ষার্থীদের নজরকারলে তারা সকলেই আমাকে সহযোগীতা করেন। আমার বাড়ী স্কুলের পাশে হওয়ায় বিদ্যালয় ছুটির পর বাগান পরিচর্চা করি। বেশিরভাগ অবসর সময়টা বাগানের মধ্যেই কাটিয়ে দিই।

আমার ছাদ বাগানের খবর পেয়ে উপজেলা উদ্ভিদ ও প্রাণি সংরক্ষন বিভাগের উপ সহকারি অফিসার নাজমুল হক সময় পেলেই এখানে ছুটে আসেন এবং বিভিন্ন পরামর্শ দেন।

তিনি আরও জানান, ছাদ বাগান তৈরীতে একটু খরচ ও পরিশ্রম বেশী হলেও এখানে বাগান থাকে নিরাপদ। কারন এখানে গরু,ছাগল কিংবা মানুষের দ্বারা বাগানের ক্ষতি হওয়ার কোন রকম সম্ভাবনা নেই।

বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং সৌন্দর্য পিপাসু ব্যাক্তি অনেকে বাগান দেখতে ছাদে ভিড় জমায় তাদের আমি ছাদ বাগান করার পরামর্শ দেই।অনেকে আমার বাগান দেখে উৎসাহিত হচ্ছেন।

বিডি২৪লাইভ/এজে

সর্বশেষ

এডিটর ইন চিফ: আমিরুল ইসলাম আসাদ
বিডি২৪লাইভ মিডিয়া (প্রাঃ) লিঃ, বাড়ি # ৩৫/১০, রোড # ১১, শেখেরটেক, মোহাম্মদপুর, ঢাকা - ১২০৭, 
ই-মেইলঃ info@bd24live.com, 
ফোন: ০২-৫৮১৫৭৭৪৪

বার্তা প্রধান: ০৯৬১১৬৭৭১৯০
নিউজ রুম: ০৯৬১১৬৭৭১৯১
মফস্বল ডেস্ক: ০১৫৫২৫৯২৫০২
ই: office.bd24live@gmail.com

Site Developed & Maintaned by: Primex Systems