ঢাকা, বুধবার, ২২ মে, ২০১৯

মাংসের টুকরোগুলো দেয়ালে ও আশেপাশে ছড়িয়ে পড়ে

২১ এপ্রিল, ২০১৯ ২২:৫৯:০০

পুরো দেয়ালজুড়ে ছড়িয়ে ছিলো মাংসখণ্ড, এমন কি ছিটকে গিয়ে পড়েছে গির্জার বাইরেও। মেঝেতে পড়ে ছিলো ভাঙা কাচের টুকরো ও ধ্বংসাবশেষ।

খ্রিষ্টানদের ধর্মীয় উৎসব ইস্টার সানডে উদযাপনকালে রোববার (২১ এপ্রিল) সকালে কয়েকটি গির্জা ও হোটেলে সিরিজ বোমা হামলার পর এমন দৃশ্যের বর্ণনা দেন কলম্বোর আর্কিডোসিসের সামাজিক যোগাযোগ পরিচালক ফাদার এডমন্ড টিলেকারটনে।

এ হামলায় এখনও পর্যন্ত ২০৭ জন নিহতের সংবাদ পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৪৫০ জন। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান।

বোমা হামলা চালানোর টার্গেটে সেন্ট সেবাস্তিয়ানস গির্জা ছিলো বলেও যুক্তরাষ্ট্রের বার্তা সংস্থা সিএনএন-কে জানান ফাদার এডমন্ড টিলেকারটনে।

তিনি বলেন, ইস্টার সানডে উপলক্ষে শ্রীলঙ্কার সেন্ট সেবাস্তিয়ানস গির্জায় সমবেত হয়েছিলেন এক হাজারেরও বেশি মানুষ। অনেকে এসেছিলেন গ্রাম থেকে। সমাবেত জনতার হয়ে প্রার্থনায় মগ্ন ছিলেন তিনজন ধর্মযাজক। ঠিক তখনই ঘটে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা।

এক প্রতিবেদনে রয়টার্স বলে, সকালে ইস্টার সানডে উপলক্ষে অনেক মানুষের ঢল নামে কলম্বোর গির্জাগুলোতে। এসময় ৩টি গির্জা একসঙ্গে সিরিজ বোমা হামলা ঘটানো হয়, ওই কলম্বো শহর থেকে কিছু দুরে অবস্থিত আরও কয়েকটি গির্জায় হামলা চালানো হয়। এদিকে শুধু গির্জায় হামলা করেই ক্ষান্ত হয়নি জঙ্গিরা গির্জার পাশে অবস্থিত শহরের প্রধান দু’টি হোটেলেও সিরিজ বোমা হামলা চালানো হয়।

এদিকে ওই ঘটনায় দেশটির বোমা স্কোয়াডের একটি সূত্র জানায়, কলম্বের যে গির্জায় সিরিজ বোমা হামলা চালানো হয়েছে। তার থেকে ঠিক কয়েক কিলোমিটার দুরে অবস্থিত শহর নিগোম্বোতে আরও একটি গির্জায় একই সময়ে একই কায়দায় বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে।

কলম্বোর সেন্ট অ্যান্থনি চার্চে প্রথম বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ওই বিস্ফোরণের এক প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন বিস্ফোরণে পুরো ভবন কেঁপে ওঠে। দ্বিতীয় আরেকটি বিস্ফোরণ ঘটেছে রাজধানী কলম্বোর উত্তরেনেগোম্বো শহরের আরেকটি চার্চে। নিজেদের ফেসবুক পাতায় সাহায্য চেয়ে আবেদন করেছে ওই চার্চ কর্তৃপক্ষ। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিতে কুতুয়াপিটায়ে-এর সেন্ট সিবাস্তিয়ান চার্চের অভ্যন্তরণে ছিন্নভিন্ন ছাদের ছবি দেখা গেছে। মেঝেতে রক্ত পড়ে থাকার ছবিও দেখা গেছে।

বিডি২৪লাইভ/এইচকে

এডিটর ইন চিফ: আমিরুল ইসলাম আসাদ
বিডি২৪লাইভ মিডিয়া (প্রাঃ) লিঃ, বাড়ি # ৩৫/১০, রোড # ১১, শেখেরটেক, মোহাম্মদপুর, ঢাকা - ১২০৭, 
ই-মেইলঃ info@bd24live.com, 
ফোন: ০২-৫৮১৫৭৭৪৪

বার্তা প্রধান: ০৯৬১১৬৭৭১৯০
নিউজ রুম: ০৯৬১১৬৭৭১৯১
মফস্বল ডেস্ক: ০১৫৫২৫৯২৫০২
ই: office.bd24live@gmail.com

Site Developed & Maintaned by: Primex Systems