রাসেল আমাকে দেখে লজ্জা পায়: মুস্তাফিজ

১৮ জুন ২০১৯, ১০:২৯:০৩

চলমান দ্বাদশ বিশ্বকাপে সাফল্যের তুঙ্গে রয়েছে টিম বাংলাদেশ। সোমবারের ম্যাচে টার্গেট ছিল বিশাল। তবুও সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখার জন্য ঝড়ো ইনিংস খেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৭ উইকেটের ব্যবধানে হারিয়ে বিশাল জয় পেয়েছে বাংলাদেশ।

এমন একটা জয়ই দরকার ছিল। শুধু সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখার জন্যই নয়, দলের আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়ার জন্যও। টাউন্টনে এদিন দাঁতে দাঁত চেপে নেমেছিল টাইগাররা। সমর্থকরাও বসে ছিলেন তীর্থের মতো। শেষ পর্যন্ত হতাশ করেননি সাকিব-লিটন-মুস্তাফিজরা। বাংলাদেশের দুর্দান্ত বোলিং এবং বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে মুগ্ধ হয়ে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন বিশ্বের অনেক কিংবদন্তি।

বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচের আগে টাইগার কোচ স্টিভ রোডস জানিয়েছিলেন তাঁদের জন্য সব থেকে বড় হুমকি আন্দ্রে রাসেল। কিন্তু এই রাসেলকেই বাংলাদেশের বাঁচা মরার ম্যাচে ০ রানে বিদায় করেছেন পেসার মুস্তাফিজুর রহমান।

এর আগে ২০১৬ সালের আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডারর্সে আন্দ্রে রাসেলকে দুর্দান্ত এক ইয়র্কারে মাত্র ২ রানে বোল্ড করেছিলেন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে সেবছর আইপিএল মাতানো মুস্তাফিজ।

৩ বছর পর টনটনে বিশ্বকাপের মঞ্চেও দেখা গিয়েছে একই চিত্র। ক্যারিবিয়ান এই অলরান্ডারকে ০ রানেই সাজঘরে ফিরিয়েছেন মুস্তাফিজ। বিধ্বংসী এই ক্যারিবিয়ানের বার বার উইকেট তুলে নেয়ার পর মুস্তাফিজ জানিয়েছেন, তাকে মোকাবেলা করতে আন্দ্রে রাসেল লজ্জা পান।

মুস্তাফিজ বলেন, ‘রাসেল শুধু আজকে না এর আগেও অনেক বার আউট করেছি, ও আমাকে দেখলে একটু লজ্জা পায় আসলে!’

বাংলাদেশের বাঁচা মরার ম্যাচে বল হাতে শুরুটা ভালো হয়নি মুস্তাফিজের। প্রথমে তার উপর চড়াও হয়ে খেলেছেন প্রতিপক্ষ দলের ব্যাটসম্যানরা। এরপর অবশ্য ঠিকই ৩ উইকেট তুলে নিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন তিনি।

এ ব্যাপারে মুস্তাফিজ বলেন, ‘ওই সময় তো সবাই মারতে শুরু করসিল। আমাকে সে সময় বোলিং দিয়েছে আমি চেষ্টা করেছি।’

ইনিংসে ৪০তম ওভার পর্যন্ত ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ ওয়েস্ট ইন্ডিজদের পক্ষেই ছিল। সেই সময় বোলিংয়ে এসে ওভারে ২ উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচের মোড় ঘুড়িয়ে দেন মুস্তাফিজুর রহমান। বাঁহাতি এই পেসারের ৩ উইকেট নেয়ার দিন জেসন হোল্ডারের দল ৩২১ রানের পুঁজি পেলেও সাকিব আল হাসানের সেঞ্চুরিতে ৭ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।