অপহৃত কিশোর উদ্ধার, দুই অপহরণকারীকে গণধোলাই

১৯ জুলাই ২০১৯, ১:০৪:০০

অপহৃত এক কিশোর উদ্ধারসহ অপহরণকারী চক্রের দুই সদস্যকে বিক্ষুব্ধ জনতা আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে। এসময় বিক্ষুদ্ধ জনতাকে থামাতে পুলিশ ছয় রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) এ ঘটনা ঘটে।

আটককৃত অপহরণকারীরা উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের নুনদহ গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে মামুন (২৭) ও একই ইউনিয়নের সাবগাছি হাতিয়াদহ গ্রামের সবুর মিয়ার ছেলে সৈকত (২৬)।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মেহেদী হাসান ঘটনা নিশ্চিত করে জানান, এ ব্যাপারে সিয়ামের ভগ্নিপতি তারাজুল ইসলাম বাদি হয়ে থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছে। পলাতক অপর ৪ অপহরণকারীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

জানা যায়, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের কোমরপুর এলাকার দুদু মিয়ার ছেলে সিয়াম (১০) বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে তার ভগ্নিপতি তারাজুল ইসলামের বাড়ি থেকে বের হওয়ার পর বালুয়া বাজার থেকে অপহৃত হয়। পরিবারের লোকজন সিয়ামকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে অপহরণকারীরা সিয়ামের পরিবারের কাছে মুক্তিপণ দাবি করে।

সকাল ১০টার দিকে গোবিন্দগঞ্জ-দিনাজপুর সড়কের সাহেবগঞ্জ ইক্ষু ফার্মের কাটা এলাকায় ৫/৬ জন যুবকের সাথে সিয়ামকে দেখতে পেয়ে স্থানীয় লোকজন তাদেরকে ধাওয়া করে দুই কিলোমিটার দূরে কামারপাড়ায় অপহৃত কিশোরসহ দুই অপহরণকারীকে আটক করলেও অপর চারজন পালিয়ে যায়। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতা ওই দুই অপহরনকারীকে গণধোলাই দিতে থাকে।

খবর পেয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে উপস্থিত জনতা পুলিশের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। পুলিশ দুই রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং অপহৃত কিশোর সিয়ামকে উদ্ধারসহ আহত অবস্থায় অপহরণকারী দুই যুবককে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।