প্রেমিকা হারানোর কষ্টে মন্দিরে গিয়ে ফেসবুক লাইভে আত্মহত্যা

২২ জুলাই ২০১৯, ৮:৪৫:৩৪

দীর্ঘদিনের প্রেম, প্রেমিকা অন্যের হাত ধরে চলে গেছেন। তাই দুঃখে-অভিমানে একরাশ হাতাশায় ভারতের উত্তর প্রদেশের ২২ বছর বয়সী এক তরুণ ফেসবুকে লাইভে এসে আত্মহত্যা করেছেন।

ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঘটনা উত্তর প্রদেশের আগ্রার রায়ভা গ্রামের। শ্যাম শিকারওয়ারের সঙ্গে দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল এক যুবতীর। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত তার বিয়ে হয়ে যায় অন্য কারও সঙ্গে। তারপর থেকেই অবসাদে ভুগছিলেন শ্যাম। কোনও কাজেই মন বসাতে পারছিলেন না। এমনকি নিজের চাকরিও খোয়ান তিনি। এই পরিস্থিতি থেকে নিজেকে বের করার চেষ্টাও করেছিলেন। কিন্তু পারেননি। বান্ধবী যে এখন অন্য কারও, এই সত্যিটা কিছুতেই মেনে নিতে পারছিলেন না। তাই প্রেমে ব্যর্থ হয়ে গত শনিবার সকালে গ্রামের একটি মন্দিরে গিয়ে সেখানেই গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন শ্যাম। এলাকায় যিনি রাজ নামেই বেশি পরিচিত ছিলেন। নিজের আত্মহত্যার দৃশ্য ফেসবুকে লাইভ করেন তিনি।

পুলিশ জানতে পারে, শ্যাম যে আত্মহননের কথা ভাবছেন, তা নিজের বন্ধুদেরও জানিয়েছিলেন। কিন্তু কেউই তার কথার সেভাবে আমল দেননি। তার সমস্যাকে গুরুত্ব দিলে হয়তো বাঁচতে পারত একটা তরুণ প্রাণ। কিন্তু হল অন্যরকমই। মিনিট চারেকের লাইভে শ্যাম পুলিশকে জানান, তার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়। কাউকে যেন গ্রেফতার করা না হয়। পাশাপাশি পরিবারের কাছে তিনি অনুরোধ করেন, তার মৃতদেহের ছবি যেন সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করা হয়। ফেসবুক লাইভের পাশাপাশি একটি চারপাতার সুইসাইড নোটও উদ্ধার করেছে পুলিশ।

যেখানে নিজের কষ্ট ব্যক্ত করে শ্যাম লিখেছেন, আমি ওকে (প্রেমিকা) খুব মিস করি। ওকে ছাড়া বাঁচতে পারছি না। ওর অন্য কাউকে বিয়ে করাটা মেনে নেওয়া কঠিন। মানসিক চাপে ভুগছিলাম। নিজের চাকরিটাও খুইয়েছি। চিঠিতে অঙ্গদানের ইচ্ছাও প্রকাশ করে গিয়েছেন তিনি। ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, গুরগাঁওয়ের একটি কারখানায় কাজ করতেন শ্যাম। তবে সম্প্রতি চাকরি হারিয়েছিলেন। তার লাইভের ভিডিওটি মুছে ফেলে ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি ডিঅ্যাকটিভেট করে দেওয়া হয়েছে।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।