মুজিব বর্ষে আলোকিত হবে পুরো পঞ্চগড়

২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১১:৪৪:৫৯

মুজিব বর্ষে দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের প্রতিটি গ্রামে বিদ্যুৎ পৌছে যাবে বলে জানিয়েছে ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির আওতাধীন পঞ্চগড় জোনাল অফিস। ইতিমধ্যে জেলার চারটি উপজেলায় ৫ হাজার ৩৬ কিলোমিটার লাইন নির্মান কাজ শেষ হয়েছে। আটোয়ারি উপজেলাকে শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় আনা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আটোয়ারি উপজেলাতে শতভাগ বিদ্যুতায়িত উপজেলা ঘোষণা করেছে।

পঞ্চগড় সদর, তেতুঁলিয়া, বোদা উপজেলায় প্রতিটি গ্রামে লাইন নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে শুধুমাত্র দেবীগঞ্জ উপজেলায় ১৪ কিলোমিটার লাইন নির্মাণ হলে জেলায় লাইন নির্মান কাজ শেষ হবে। আগামি মার্চ মাসের মধ্যে লাইন নির্মানের কাজ শেষ হবে। পল্লী বিদ্যুৎ বিভাগ জানিয়েছে আমাদের অধীনে পঞ্চগড়ের ১০৩১টি গ্রামে বিদুৎ পৌছানোর কাজ শুরু হয়েছে কয়েক বছর আগে। জেলায় ৭ শত ৫কোটি টাকা ব্যায়ে লাইন নির্মান কাজ শেষ পর্যায়ে পৌছেছে। যেখানে লাইন নির্মান শেষ হচ্ছে সেখানে গ্রাহকদের ভোগান্তি ছাড়াই বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হচ্ছে। পুরো প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে প্রায় ১(এক) লক্ষ ৯০ হাজার গ্রাহক পল্লী বিদ্যুৎ এর সুবিধার আওতায় আসবে।

ইতিমধ্যেই এই জেলায় ১ লক্ষ ৮০ হাজার ৬৭৮টি গ্রাহক বিদ্যুতের আওতায় এসেছে। আবাসিক এলাকা ছাড়াও জেলায় চা কারখানা রাইস মিল এবং অন্যান কারখানায় ৭শত ১৪টি বিদ্যুৎ গ্রাহক রয়েছে এর মধ্যে চা কারখানায় ৬টি রাইসমিল (হাস্কিং মিল) এ ৫৬৩টি এবং অন্যান্য কল কারখানায় ১৪৫টি গ্রাহক পল্লী বিদ্যুৎ এর আওতাভুক্ত রয়েছে। পল্লী বিদ্যুৎ বিভাগ জানায় পঞ্চগড় সদর বোদা ও তেতুঁলিয়া উপজেলায় গত জানুয়ারি মাস হতে আলোর ফেরিওয়ালা কর্মসুচি হাতে নেওয়া হয়েছে। গত ১১ জানুয়ারি সদর উপজেলার হাফিজাবাদ ইউনিয়নের পুকুরিডাঙ্গা গ্রামে ১১ টি পরিবারকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার মাধ্যমে আলোর ফেরিওয়ালা কর্মসুচি শুরু হয়। এরপর ১৮ জানুয়ারি আটোয়ারী উপজেলার রাধানগড় গ্রামে ৬২ টি বাড়িতে, ১০ ফেব্রুয়ারি সদর উপজেলার হাড়িভাষা ইউনিয়নে ৪০টি বাড়িতে শুধুমাত্র ৪শত ৫০ টাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়েছে আলোর ফেরিওয়ালারা। সরেজমিনে গত ১৯ ফেব্রুয়ারি সদর উপজেলার মাগুড়া ইউনিয়নের দিঘলগ্রামে গিয়ে দেখাযায় আলোর ফেরিওয়ালা কর্মসুচি। পঞ্চগড় জোনাল অফিসের সহকারি ব্যবস্থাপক মেহেদি হাসান নিজেই তদারকি করছেন আলোর ফেরিওয়ালা কর্মসুচি। মেহেদি হাসান এর সাথে কথা বললে তিনি জানায় জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে পঞ্চগড়ে আলোর ফেরিওয়ালা কর্মসুচি জোরদার করা হয়েছে।
গ্রামীণ জনগোষ্ঠির যে সকল গ্রাহক অফিসে গিয়ে সংযোগের আবেদন করতে পারছেনা সেইসব বাড়ি খুঁজে খুঁজে আমরা তাদের দোড়গোড়ায় বিদ্যুৎ এর আলো পৌছে দিচ্ছি। আলোর ফেরিওয়ালার মাধ্যমে গ্রাহকরা ভীষণভাবে উপকৃত হচ্ছে। ৪ শত পঞ্চাশ টাকায় বাড়িতে বসেই শুধুমাত্র ছবি জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে তাৎক্ষনিকভাবে পাচ্ছে বিদ্যুৎ সংযোগ। শতভাগ বিদ্যুতায়ন হতে পঞ্চগড় জেলা আমরা দ্বাড়প্রান্তে রয়েছি। আশা করছি অচিরেই প্রধানমন্ত্রী পঞ্চগড় জেলাতে শতভাগ বিদ্যুতায়ন উদ্বোধন করবে। আসলে দেশের এই বিশাল আয়তন এ বিদ্যুতের আলো পৌছে দেওয়ার কঠিন কাজটি এক সময় আমাদের স্বপ্ন ছিল। একদিকে বিদ্যুৎ লাইন নির্মাণ অন্যদিকে বিদ্যুতের চাহিদার যোগান দেওয়া খুবই কঠিন। তারপরেও প্রধানমন্ত্রীর সদিচ্ছা হস্তক্ষেপ ও ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় মুজিব বর্ষে আলোকিত হচ্ছে পুরো পঞ্চগড়।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।