ত্রাণ না পেয়ে চট্টগ্রামে সড়ক অবরোধ

২ এপ্রিল ২০২০, ১১:০৬:৪০

চট্টগ্রাম মহানগরীর জিইসির মোড় এলাকায় বুধবার দুপুরে ত্রাণ না পেয়ে শতাধিক নারী-পুরুষ মহাসড়কে অবস্থান নেন। এই সময় সড়কে গাড়ি না থাকার কারণে যানজট হয়নি। তবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার এই সময়ে শত শত নারী-পুরুষ সড়কে বসে বিক্ষোভ করেন ত্রাণের দাবিতে। পরে পুলিশ গিয়ে তাদের সরিয়ে দেয়। বুধবার (০১ এপ্রিল) দুপুরে জিইসির মোড় এলাকায় এই দৃশ্য দেখা গেছে। এর আগে বেলা ১১টার পর থেকে বাটাগলিতে ত্রাণ বিতরণ করছিলেন যুবলীগ নেতা আরশাদুল আলম বাচ্চু। ত্রাণ বিতরণকালে হাজারো লোক সেখানে ভিড় করে। হুড়োহুড়িতে নাভিশ্বাস অবস্থা তৈরি হয়।

আওয়ামী লীগ নেতা আরশাদুল আলম বাচ্চু বিপুল সংখ্যক লোককে ত্রাণ দিচ্ছেন এবং সেখানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা হচ্ছে না- এমন তথ্য পেয়ে দ্রুত পৌঁছে পুলিশের একটি দল। পুলিশ গিয়ে যুবলীগ নেতার সঙ্গে আলাপ করে সামাজিক দূরত্ব তৈরির বিষয়টি অবহিত করেন এবং বৃত্ত এঁকে দিয়ে সাধারণ মানুষকে সেখানে দাঁড়ানোর অনুরোধ করা হয়। সামনের দিকে বৃত্তের মধ্যে কয়েকজন নারী-পুরুষ অবস্থান নিলেও পেছনে শত শত মানুষের হুড়োহুড়ি ছিল। এক পর্যায়ে দুপুরে ত্রাণ বিতরণ শেষ হয়ে যায়। তখনও ত্রাণের অপেক্ষায় ছিলেন শত শত নারী-পুরুষ। এমতাবস্থায় ত্রাণ না পেয়ে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন তারা। পরক্ষণে সড়কে অবস্থান নেন। বেলা ২টার পর সড়ক অবরোধ করার পরপরই আরেক দফা পুলিশ পৌঁছে ঘটনাস্থলে। তারা দীর্ঘসময় ধরে সাধারণ মানুষকে বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে দেন। ত্রাণ বিতরণের বিষয়ে নগর ছাত্রলীগের নেতা হাবিবুর রহমান তারেক এক জাতীয় দৈনিককে বলেন, ‘যুবলীগ নেতা আরশাদুল আলম বাচ্চু নিজ উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ করেন। সেখানে এক হাজার মানুষকে ত্রাণ দেওয়া হয়। প্রতি প্যাকেটে চাল, ডালসহ প্রায় ১০ কেজি নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী ছিল। ত্রাণ বিতরণের পরও সেখানে অনেক লোক জড়ো হন। কিন্তু তাদের মধ্যে কিছু লোক সড়কে অবস্থান নেন। খবর পেয়ে পুলিশ এসে তাদের বুঝিয়ে সরিয়ে দিয়েছে। অন্য কোনো সমস্যা হয়নি সেখানে।’ সূত্র: কালের কণ্ঠ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।