পিপিই নিয়ে অভিযোগ করা ডাক্তারের ঠিকানা মানসিক হাসপাতাল

২২ মে ২০২০, ৪:৫১:২৭

মাস্ক এবং পিপিই সংকটের অভিযোগ তোলা ভারতীয় চিকিৎসক ডা. সুধাকর রাওকে জোর করে মানসিক হাসপাতালে নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০ বছরের অভিজ্ঞ এই ভারতীয় অ্যানেসথেটিস্ট দুই মাসের ভেতরে দুইবার আলোচনায় আসলেন। এর আগে তাকে বরখাস্ত করা হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, ভারতের বিশাখাপত্তমের একটি রাস্তায় নিজের গাড়িতে খালি গায়ে বসে আছেন সুধাকর। আরেকটি ভিডিওতে দেখা যায়, তিনি খালি গায়ে রাস্তায় শুয়ে পড়েছেন। হাত বাঁধা। লাঠি দিয়ে আঘাত করছেন এক কনস্টেবল।

ঘটনারা সময় স্থানীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন সুধাকর। তিনি জানান, পুলিশ সদস্যরা তার গাড়ি জোর করে থামায় এবং তাকে বের করে নেয়। বিশাখাপত্তম পুলিশ কমিশনার আরকে মিনা বলেছেন, এক লোক মদ খেয়ে রাস্তায় মাতলামি করছেন এমন অভিযোগ পেয়ে পুলিশ সেখানে যায়। ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগে পর্যন্ত পুলিশ কর্মকর্তারা জানতেন না ওই ব্যক্তি ডা. সুধাকর রাও।

পুলিশের অভিযোগ, রাস্তায় দেয়া একটি ব্যারিকেড সরিয়ে ফেলার চেষ্টা করছিলেন সুধাকর এবং রাস্তার ওপর মদের বোতল ফেলে রেখেছিলেন। ‘দৃশ্যত তাকে মনে হয়েছে মানসিক সমস্যায় ভুগছেন। তাই তাকে প্রথমে একটি পুলিশ স্টেশনে নেয়া হয়। পরে একটি হাসপাতালে প্রাথমিক পরীক্ষা করানো হয়। সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে মানসিক কোনো হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন।’

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।