ভোলায় বৃদ্ধকে খুঁটির সাথে বেঁধে খাওয়ানো হল গোবর! (ভিডিও)

৯ আগস্ট ২০২০, ১২:১৪:৪৫

জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে ভোলা সদর উপজেলার পূর্ব ইলিশা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে এক বৃদ্ধকে নির্যাতন করে রশি দিয়ে খুটির সাথে বেঁধে গোবর (গরুর মল) খাওয়ানোর অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও দাঁড়িতে গোবর মেখে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বৃদ্ধকে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।

লোমহর্ষক ঘটনাটির ভিডিও শুক্রবার (৭ আগস্ট) রাতে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে তীব্র নিন্দা ও ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়। পরে শনিবার (৮ আগস্ট) সকালে পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রশিদ মল্লিক নামের একজনকে আটক করে।

নির্যাতনের শিকার ওই কৃষকের নাম রফিকুল ইসলামের ছেলে মুনসুর (৫৩)। তিনি জানান, জমি নিয়ে তার বোন জামাই রশিদ মল্লিকের সঙ্গে বিরোধ হলে গত ২৫ জুলাই তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তাকে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর প্রকাশ্যে গরুর খুঁটির সঙ্গে হাত-পা বেঁধে তাকে ঘণ্টাব্যাপী অমানবিক নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে তাকে গরুর গোবর খাইয়ে দেয়। প্রতিপক্ষ প্রভাবশালী হওয়ায় এত দিন তিনি ভয়ে মুখ খোলেননি।

ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যায়, রফিকুল ইসলামের ছেলে মুনসুর নামে ওই বৃদ্ধকে রশি দিয়ে খুঁটির সাথে হাত বেঁধে রশিদ মল্লিকের নির্দেশে আরসাদ মল্লিক (২৭) নামে এক যুবক একটি লাঠির মাথায় গোবর নিয়ে খাওয়ান ও বৃদ্ধের দাঁড়িতে সেই গোবর মেখে দেন এবং মারধর করা হয়।

এ ঘটনাটি গত ২৫ জুলাই ঘটলে প্রথমে নির্যাতিত মুনসুর ভয়ে থানার দারস্থ হননি। কিন্তু ওই ঘটনার ১৪ দিন পর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরালের পর রশিদ মল্লিককে শুক্রবার রাতে আটক করা হয়।

এ ব্যাপারে ভোলা থানার ওসি এনায়েত হোসেন জানান, শনিবার সকালে মুনসুর বাদী হয়ে নাতনি জামাই আরসাদকে প্রধান আসামি ও রশিদ মল্লিককে দ্বিতীয় আসামি করে ৪ জনের বিরুদ্ধে ভোলা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং-১৪। মামলায় ঘটনার মূল হোতা রশিদ মল্লিককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।