বগুড়ায় চার মাস পর মুক্ত হলেন গৃহবধূ!

১৪ জুন ২০২১, ১১:৩১:১২

বগুড়ার শাজাহানপুরে দুই সন্তানের এক জননীকে স্বামীর বাড়িতে ৪ মাস গৃহবন্দি থাকার পর উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে স্বামী ও শশুর পালিয়ে যান। সোমবার (১৪ জুন) দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার নয়মাইল এলাকায় স্বামীর বিল্ডিং বাড়ির ৩য় তলা থেকে ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করা হয়।

জানাগেছে, উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের নয়মাইল মন্ডলপাড়ার জোলহার মন্ডলের ছেলে ঢেউটিন ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলামের (৩৫) সাথে ওই গৃহবধুর ১১ বছর আগে বিয়ে হয়। বর্তমানে তাদের সংসারে ৯ ও ৫ বছরের দুইটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

নির্যাতিত ওই গৃহবধু জানান, বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই তার স্বামী ও শশুর-শ্বাশুড়ী কারণে-অকারণে তাকে শারিরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছেন। গত ৪-৫ মাস আগে থেকে বাবার বাড়ির কারো সাথে যোগযোগ করতে দেয়নি। এমনকি স্বামীর বিল্ডিং বাড়ির ৩য় তলায় দুই শিশু সন্তানসহ তাকে বন্দি করে রাখেন। ঠিক মত খাবার দিত না। গোপনে বাবা-মাকে জানালে তাদেরকেও দেখা করতে দেয়নি তার স্বামী ও শ্বশুড়-শ্বাশুড়ী।

গৃহবধূর বাবা আব্দুল গোফ্ফার জানান, মেয়ের দেয়া খবর পেয়ে জামাইয়ের বাড়িতে গেলে তারা মেয়ের সাথে দেখা করতে দেয়নি। এমনকি দূর্ব্যবহার করে তাড়িয়ে দিয়েছে। স্থানীয় লোকজন গেলেও তাদের সাথে দূর্ব্যবহার করেছে। পরে থানায় অভিযোগ করলে থানা পুলিশ গিয়ে তার মেয়েকে উদ্ধার করে।

এবিষয়ে স্বামী রফিকুল ইসলামের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। শাজাহানপুর থানার এসআই আব্দুর রহমান জানান, গৃহবধুকে বন্দি করে রাখার অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে ওই গৃহবধুকে উদ্ধার করে স্বজনদের জিম্মায় দেয়া হয়েছে।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।