প্রশাসনের নাকের ডগায় রাজধানীতে চলছে নিষিদ্ধ যান

৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২:০০:২৫

সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে দেশের বিভিন্ন স্থানে যেসব ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান চলছে তা বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান বন্ধের সিদ্ধান্ত নিলেও এখনও রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় হরহামেশাই চলছে এসকল যান। বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান প্রধান সড়কে তুলনায় কিছুটা কম থাকলেও আশপাশের বিভিন্ন রাস্তায় পুরোদমে চলছে।

রাজধানীর অলিগলিতে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন নিষিদ্ধ ব্যাটারিচালিত রিকশা। অলিগলি থেকে শুরু করে প্রধান সড়কেও এসব রিকশার দাপট থাকলেও নিষিদ্ধ এ বাহনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দেখা যাচ্ছে না। সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে দেশের বিভিন্ন স্থানে যেসব ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান চলছে তা বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও দিন দিন বেড়েই চলছে ব্যাটারিচালিত এই যান। ওজন ও গতির সঙ্গেও কোনো সামঞ্জস্য না থাকায় ব্যাটারিচালিত রিকশা কেন্দ্রিক দুর্ঘটনাসহ প্রাণহানির ঘটনাও প্রতিনিয়ত ঘটছে। এ কারণে এই বাহনটির চলাচল বন্ধ করতে পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। যদিও প্রশাসনের ভুমিকা প্রথম দিকে চোখে পড়লেও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাদের প্রভাবের কারনে তা বন্ধ করতে পারেনি।

রাজধানীর শনির আখড়া থেকে রায়েরবাগ মূল সড়কেও হরহামেশাই চলছে এই যান। বলা যায় প্রশাসনের নাকের ডগা দিয়ে চলছে এই নিষিদ্ধ যান। মাঝেমধ্যে এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিলেও বেশিরভাগ সময় নিরবতা পালন করতে দেখা গেছে প্রশাসনকে। ব্যাটারিচালিত রিকশা চালকরা বলছে, দেশে লাখ লাখ ব্যাটারিচালিত রিকশা চলছে। প্রত্যেক রিকশার ওপর নির্ভর করছে একটি পরিবার। আমরাতো কর্ম করে আমাদের পরিবার চালাই। যেখানে এই যন্ত্রপাতি তৈরি হয় তা বন্ধ না করে আমাদের যদি উচ্ছেদ করা হয় তাহলে আমাদের লাখ লাখ পরিবারের কি হবে। আমরা বেকার হলে আমাদের পরিবার কিভাবে চলবে। আমরা কি খাবো?

এদিকে এসব ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যানের কারনে রাজধানীর মূল সড়কে দিনের আলোতে দেখা না গেলেও রাত ৯ টা থেকে ১০ টার পর রাস্তা দাপাতে দেখা যায়। অতিরিক্ত স্প্রিড সহ মূল রাস্তার সম্পর্কে অদক্ষতা মাঝে মধ্যেই দুর্ঘটনার কারন হয়ে দাড়ায়। এছাড়া এলাকার মধ্যেই এসব যানবাহনের চালকদের মধ্যে ওভারটেকিং মনোভাব বেশি পরিলক্ষিত হয় যার ফলে প্রতিনিয়ত যানযটের সৃষ্টি হয়।

উল্লেখ্য, গত ২০ জুন ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সড়ক পরিবহন টাস্কফোর্সের সভা শেষে সাংবাদিকদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।