বাসুলিয়ায় নৌকাবাইচ, হাজারো মানুষের ঢল

২২ জুলাই ২০২২, ৮:১৯:৫৭

আবহমান বাঙালী জাতির ঐতিহ্য ও শতবর্ষের প্রাচীন সংস্কৃতির অন্যতম অনুষঙ্গ নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা। নদী মাতৃক এ দেশের গ্রামীণ লোক সাংস্কৃতির সেই ঐতিহ্যকে বুকে ধারণ করে দেশের বিভিন্ন নদ-নদী ও বিল-বাওড়ে আয়োজন করা হয় নৌকা বাইচের। এরই ধারাবাহিকতায় বাসাইলের দিগন্ত বিস্তৃত জলভরা দৃষ্টিনন্দন বাসুলিয়ায় উৎসব মুখর পরিবেশে এবারো অনুষ্ঠিত হলো ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ। থৈথৈ জলে, ঢাক-ঢোলের তালে তালে গ্রাম বাংলার গান আর মাঝি-মাল্লার বৈঠার ছন্দ মাতিয়ে তোলে বাসুলিয়ার শান্ত জলের ঢেউকে। আর সেই তালে তাল মেলাতে বিশাল বিস্তৃত বসুলিয়া খ্যাত চাপড়া বিলের বুকে নামে হাজারো জনতার ঢল।

শুক্রবার (২২ জুলাই) দুপুর ২টায় বাসাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত মো. আবদুল মালেক মিয়া স্মৃতি নৌকা বাইচ-২০২২ অনুষ্ঠিত হয়। টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক ড. মো. আতাউল গণির সভাপতিত্বে এ নৌকা বাইচে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক ও টাঙ্গাইল-৮ (বাসাইল-সখিপুর) এর সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. জোয়াহেরুল ইসলাম (ভিপি জোয়াহের)।

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন- গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অতিরিক্তি সচিব ড. হারুন অর রশিদ, প্রধান সমন্বয়কারী হিসাবে ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাহিদা পারভীন, প্রধান আলোচক হিসাবে ছিলেন আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কিডনী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক এম. এ সামাদ।

ছবি: প্রতিনিধি

প্রতিযোগিতায় নারায়ণগঞ্জ, টাঙ্গাইলের বিভিন্ন উপজেলা থেকে শিপ নৌকা, পানশী নৌকা, কোশা নৌকা, ময়ূরপক্সক্ষীসহ বাহারি নামের ও রঙের প্রায় ৩০টি নৌকা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে।

জেলার অন্যতম বিনোদনমূলক এ প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে জলপথে নৌকা আর সড়কপথে যানবাহনে প্রায় লক্ষাধিক মানুষের সমাগম হয়। পুরুষের পাশাপাশি নারীদের উপস্থিতিও ছিলো চোখে পড়ার মতো।

প্রতিযোগিতার চুড়ান্ত রাউন্ডে টাঙ্গাইলের ভূয়াপুরের ‘ নিউ হীরার তরী’নৌকাটি চ্যাম্পিয়ন হয়। রানার্স আপ হয়’ নাগরপুরের হারানো তরী’। পরে অতিথীবৃন্দ বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।