যশোরে ইবনে সিনায় ইনজেকশনের পর রোগীর মৃত্যু!

২৪ জুলাই ২০২২, ১১:৪৪:২১

যশোরে ইবনে সিনা হসপিটাল এন্ড ডায়োগনস্টিক সেন্টারে ভুল চিকিৎসায় মইফুল বেগম (৪৮) নামে এক রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। রবিবার (২৪ জুলাই) সন্ধ্যায় সেখানকার জরুরি বিভাগে ঘটনাটি ঘটে। মৃতের স্বজনরা জানান, রোগী হাঁটতে হাঁটতে জরুরি বিভাগে গেলেন। আর ইনজেকশন দেয়ার সাথেই মারা গেলেন। ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুতে স্বজনরা হট্টগোল করলে পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করে। মইফুল বেগম যশোর সদর উপজেলার বিরামপুর এলাকার সাজ্জাদ আলীর স্ত্রী।

মৃতের ছেলে শিমুল জানান, তার মা মইফুল বেগম জ্বরে আক্রান্ত হন। রবিবার সকালে তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু সেখানকার চিকিৎসাসেবা পছন্দ না হওয়ায় মাগরিবের পর পরই রোগীকে ইবনে সিনা হসপিটালে আনা হয়। শিমুল জানান, তার মা মইফুল হাঁটতে হাঁটতে ইবনেসিনার জরুরি বিভাগে গেলেন। সেখানকার চিকিৎসকের নির্দেশনায় সেবিকা দুটি ইনজেকশন পুশ করার সাথেই তার মৃত্যু হয়। শিমুলের অভিযোগ, ভুল চিকিৎসায় তার মা মারা গেছেন।

আরেক ছেলে হাবীব জানান, রোগীর শরীরে দ্রুত গতিতে সেফট্রিয়াক্সোন ইনজেকশন দেয়ার কারণে তার মা মারা গেছে। রোগীর মৃত্যুর বিষয়টি গোপন রেখে সদর হাসপাতালে নেয়ার নির্দেশনা দেন। এতে তারা ক্ষুব্ধ হন। রোগীর মৃত্যুর বিষয়টি জানার সাথেই সাথেই চিকিৎসক ও সেবিকা সেখান থেকে আত্মগোপন করেন।

হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. মোহাম্মদ আলী জানান, ঘটনার সময় জরুরি বিভাগে মেডিকেল অফিসার লাব্বাইক ও সেবিকা রেখা দায়িত্ব পালন করছিলেন। রোগীর শরীরে শুধুমাত্র কটসন ইনজেকশন দেয়া হয়েছিলো।

সদর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শফিকুল ইসলাম জানান, ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় স্বজনরা ক্ষুব্ধ হওয়ার খবরে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি শান্ত করেন। মৃতের পরিবার অভিযোগ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।