নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে কম দামে চা পাতা ক্রয়, দুই কারখানাকে জরিমানা

২৫ জুলাই ২০২২, ১০:০৭:২০

নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে কমদামে চা পাতা ক্রয় করার কারনে পঞ্চগড়ে দুই প্রক্রিয়াজাতকরন কারখানাকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। কারখানা দুটিকে ১১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ভবিষ্যতে এ ধরনের কর্মকান্ড থেকে বিরত থাকার জন্য সতর্কও করা হয়েছে কারখানা কতৃপক্ষকে। সোমবার (২৫ জুলাই) বিকেলে সদর উপজেলার কারখানাগুলোতে জেলা প্রশাসনের নিয়মিত অভিযানে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও সদর উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মাসুদুল হক এই জরিমানা করেন।

ভ্রাম্যমান আদালত সুত্রে জানা যায় সদর উপজেলার বিভিন্ন কারখানায় নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে কম দামে চা পাতা ক্রয় করার অভিযোগ দীর্ঘদিনের। চা চাষী ও বাগান মালিকদের দাবীর প্রেক্ষিতে চা পাতা মূল্য নির্ধারন কমিটির সর্বশেষ সভায় জেলা প্রশাসন ১৮ টাকা প্রতি কেজি কাঁচা চা পাতা মূল্য নির্ধারন করা হয়। কিন্ত কারখানা মালিকরা এই নির্দেশ অমান্য করে। এজন্য আজ সদর উপজেলার মৈত্রি টি ফ্যাক্টরি ও নর্থ বেঙ্গল সেন্ট্রাল টি ফ্যাক্টরিতে দেখা যায় নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে কম দামে চা পাতা ক্রয় করছিল। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন আইন ২০০৯ অনুযায়ী মৈত্রি টি ফ্যাক্টরিতে পাঁচ হাজার এবং নর্থ বেঙ্গল টি ফ্যাক্টরিতে ছয় হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক মাসুদুল হক জানান পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলামের নির্দেশে আজ দুটি কারখানায় অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে জেলার সকল চা কারখানায় অভিযান পরিচালনা করা হবে। আমরা চাই চা চাষী ও বাগান মালিকরা জেলা প্রশাসন কতৃক নির্ধারিত মূল্য পায়। এজন্য সব কারখানায় আমরা তদারকি করছি। যে কারখানার মালিক নির্ধারিত মূল্যে চা পাতা ক্রয় করবেনা অভিযোগের প্রেক্ষিতে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তাদেরক আরও কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

এ সময় বাংলাদেশ চা বোর্ড আঞ্চলিক কার্যালয়ের উর্দ্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. শামিম আল মামুন, সদর থানার ওসি আব্দুল লতিফ মিঞা সহ পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিল।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।