স্কুলছাত্রীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য, ফেসবুকে তোলপাড়

১০ নভেম্বর ২০২২, ৯:০৮:৪০

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে স্কুলছাত্রী হাছনা আক্তার নামে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া শিক্ষার্থী ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যার ঘটনা ফেসবুকে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। বুধবার সকাল ৯টার দিকে পূর্ব বগারপাড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, উপজেলার পোগলদিঘা ইউপির পূর্ব বগারপাড় গ্রামের হাসেন আলীর মেয়ে হাসনা আক্তার। সে বগারপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী। তার বাবা-মা কাজের সুবাদে দীর্ঘদিন ধরে ঢাকায় বাস করেন। হাসনা তার দাদি হাজরা বেওয়ার সঙ্গে গ্রামের বাড়ি পূর্ব বগারপাড় গ্রামে বাস করেন। মঙ্গলবার রাতে তার মা রহিমা বেগম মোবাইলে তাকে পড়ালেখা নিয়ে বকাবকি করেন বলে দাদি হাজেরা বেওয়া জানান।

দাদি হাজেরা বেওয়া আরো বলেন, রাতের খাবার না খেয়েই ঘুমিয়ে পড়ে সে। পরের দিন বুধবার সকালে হাসনা বিদ্যালয়ে যাওয়ার জন্য পোশাক পড়ে বাড়ি থেকে বের হয়। একই সময় দাদি হাজরা বেওয়া পাশের বাড়িতে যান। এ সুযোগে বিদ্যালয়ে না গিয়ে বাড়ি ফিরে আসে হাসনা। বাড়িতে কেউ না থাকায় ঘরের ধর্নার সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে সে।

কিছুক্ষণ পরে হাজরা বেওয়া বাড়ি ফিরে এসে তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। তার ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। দুপুরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাকির হোসেন সুমন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পোগলদিঘা ইউপির ৩ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য লাল মিয়া জানান, হাসনা আক্তারের আত্মহত্যার কারণ সম্পর্কে তিনি কিছু জানেন না।

সরিষাবাড়ী থানার ওসি মুহাম্মদ মহব্বত কবীর জানান, পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। সন্ধ্যায় লাশ ময়নাতদন্তের জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।