সৌদি আরবে অস্ত্র রপ্তানি বেড়েছে শতকরা ৩০০ ভাগ

০১ মার্চ, ২০১৬ ০৪:১৬:৩২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সৌদি আরবে ২০১১ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত পাঁচ বছরে অস্ত্র রপ্তানি আগের চেয়ে শতকরা ২৭৯ ভাগ বেড়েছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের একটি গণমাধ্যম এ খবর দিয়েছে। সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল পলিসির অস্ত্র ও নিরাপত্তা প্রকল্পের পরিচালক উইলিয়াম হারটাং তার এক গবেষণায় জানিয়েছেন, এসব অস্ত্রের শতকরা ৭৫ ভাগ আমেরিকা, জার্মানি ও ইংল্যান্ড থেকে সৌদি আরবে পাঠানো হয়েছে। খবর-রেতে।

হারটাং জানান, সৌদি আরবকে যেসব অস্ত্র দেয়া হয়েছে তার বেশিরভাগই ‘সেল্‌স অ্যান্ড মানি’ ভিত্তিক। এর অর্থ হচ্ছে- মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে মার্কিন নীতি সমর্থন করলে সৌদি আরব আমেরিকার কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র কিনতে পারবে। আমরিকা দাবি করে থাকে এ অঞ্চলের নিরাপত্তা জোরদারের জন্য সৌদি আরবের কাছে অস্ত্র বিক্রি করা হয়। কিন্তু এ দাবির বিরোধিতা করে হারটাং বলেন, ইয়েমেন যুদ্ধ মার্কিন দাবির সঙ্গে একদম সাংঘর্ষিক বরং মার্কিন সামরিক সহায়তা নিয়ে ইয়েমেনে আগ্রাসন চালাচ্ছে রিয়াদ।

হারটাং জানান, জর্জ বুশের চেয়ে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার আমলে সৌদি আরবে অস্ত্র বিক্রি বেড়েছে শতকরা ৯৬ ভাগ। এছাড়া, ২০১৪ সালে ২,৫০০ সৌদি সেনা আমেরিকায় প্রশিক্ষণ নিয়েছে। পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলোর সব রেকর্ড ভেঙে সৌদি আরব অস্ত্র খাতে ৮,০০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করছে। এর অংশ হিসেবে ফ্রান্স ও ব্রিটেনের কাছ থেকে এ দেশটি সামরিক বিমান ও অস্ত্রপাতি কেনার জন্য নতুন চুক্তি করেছে।

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: