প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

স্ত্রীর প্রেমিককে অটোরিকশায় তুলে খুন করলেন প্রবাসী স্বামী

   
প্রকাশিত: ১২:১১ পূর্বাহ্ণ, ২১ জানুয়ারি ২০২১

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে নিখোঁজের তিনদিন পর নুরুল ইসলাম নামে এক ঘোড়াগাড়ি চালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ঘাটাইল থানায় হত্যা মামলা করেন নিহতের ছেলে আনিছুর রহমান। সোমবার (১৮ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার লক্ষিন্দর ইউনিয়নের লক্ষিন্দর গ্রাম থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত নুরুল একই উপজেলার সংগ্রামপুর ইউনিয়নের ছনখোলা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে।

পুলিশ জানায়, শনিবার বিকেলে উপজেলার কুড়ালিয়া বাইদ এলাকায় ঘোড়দৌড় দেখতে গিয়ে নিখোঁজ হন নুরুল। পরদিন থানায় জিডি করেন তার ছেলে আনিছুর রহমান। ঘট্নার তদন্তে নেমে উপজেলার সুন্দইল গ্রামের জামাল হোসেন, তার মেয়ের জামাই দেওজানা গ্রামের ফজর আলী ও একই গ্রামের অটোচালক শাহ আলমকে আটক করে পুলিশ।

আটকদের বরাত দিয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আসাদুল ইসলাম জানান, শত্রুতার জের ধরে শনিবার সন্ধ্যায় দেওজানা বাজার থেকে নুরুল ইসলামকে জোর করে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় তোলেন তারা। পরে অটোতেই শ্বাসরোধে হত্যা করেন। মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার পর তার লাশ উপজেলার লক্ষিন্দর এলাকায় সাগরদিঘী-গারোবাজার পাকা সড়কের পাশে জঙ্গলে ফেলে যায়। পরে তাদের দেয়া তথ্যমতে সোমবার রাতে নুরুল ইসলামের হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার করা হয়।

ইউপি সদস্য বাহাদুর মিয়া জানান, জামাল হোসেনের সঙ্গে নিহত নুরুল ইসলামের আত্মীয়তার সম্পর্ক রয়েছে। জামাল হোসেন গ্রিস প্রবাসী। তার স্ত্রীর সঙ্গে নুরুল ইসলামের পরকীয়া থাকার বিষয়টি এলাকায় আলোচনায় আছে। সে কারণে এ হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে।

ঘাটাইল থানার ওসি (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম জানান, লাশ টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। শত্রুতার জের ধরে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তবে কী কারণে হত্যা করা হয়েছে তা তদন্তের পর জানা যাবে।

কাওসার/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: