প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

জাতির উদ্দেশ্যে প্রথম ভাষণে যা বললেন মিয়ানমার সেনা প্রধান

   
প্রকাশিত: ৯:৪৪ পূর্বাহ্ণ, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১

সেনা অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে উত্তাল গোটা মিয়ানমার। আন্দোলন দমাতে মরিয়া জান্তা সরকার। বিশ্বের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করতে বন্ধ রাখা হয়েছে ইন্টারনেট। রাজপথে টহল দিচ্ছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। অব্যাহত রয়েছে ধরপাকড়ও। জরুরি অবস্থা জারির পর জাতির উদ্দেশে দেওয়া প্রথম ভাষণে মিয়ানমারের সেনা প্রধান জেনারেল মিন অং লাইং বলেছেন, ভোট জালিয়াতির কারণে দেশের বেসামরিক নেতাদের ক্ষমতাচ্যুত করা হয়েছে। সোমবার টেলিভিশনে দেওয়া ভাষণে তিনি এমনটি বলেন।

মিন অং লাইং বলেন, গণতান্ত্রিক ধারা অব্যহত রাখার জন্য ২০০৮ সালের সেনা সংবিধান অনুযায়ী তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শিগগিরই নতুন নির্বাচনের আয়োজন করে বিজয়ী দলের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হবে। এদিকে সামরিক অভ্যুত্থান ও নির্বাচিত নেতা অং সান সু চিকে গ্রেফতারের বিরুদ্ধে ক্রমবর্ধমান বিক্ষোভের চাপে হুঁশিয়ারি জারি করেছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। সোমবার মিয়ানমার পুলিশের পক্ষ থেকে বিক্ষোভকারীদের সতর্ক করে বলা হয়, চলে যাও। এ ঘোষণার কিছুক্ষণ আগে বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার ইঙ্গিত দেয় রাষ্ট্রীয় সম্প্রচার মাধ্যম।

গত ১ ফেব্রুয়ারি য়ানমারের ক্ষমতা দখল করে দেশটির সামরিক বাহিনী। এদিন অভিযান চালিয়ে রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চি এবং ক্ষমতাসীন দলের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের গ্রেফতার করা হয়। দেশজুড়ে ঘোষণা করা হয় এক বছরের জরুরি অবস্থা।

নাঈম/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: