প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

আমি মরিনি, জীবিত আছি- জানালেন ইত্যাদির নাতি

   
প্রকাশিত: ৫:১৫ অপরাহ্ণ, ১২ জুন ২০২১

জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’ দিয়ে নাতি হিসেবে দেশবাসীর কাছে পরিচিত শওকত আলী তালুকদার। ডাক নাম নিপু। তুমুল জনপ্রিয় এই অভিনেতার মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়েছে আজ। সোশ্যাল মিডিয়াতে তার মৃত্যুর খবরের পোস্টে ভরে গেছে। সেসব পোস্টে বলা হচ্ছে ইত্যাদির নাতি চরিত্রে অভিনয় করা ‘মোস্তাফিজুর রহমান’ মারা গেছেন। কিন্তু এটি পুরোপুরি গুজব।

ইত্যাদির নাতি চরিত্রের নিপু ভালো আছেন। তিনি রাজধানীর উত্তরার বাসিন্দা। তবে জানা গেল, তিনি অনেকদিন ধরেই মানসিক অসুখে ভুগছেন। নিয়মিতই চলছে তার চিকিৎসা।

এক ভিডিওবার্তায় শওকত আলী তালুকদার নিপু বলেন, ‘দর্শক আমি নিপু, আপনাদের প্রিয় নাতি। আমার ছোট ভাই পলাশের ফেসবুক আইডি থেকে ভিডিওটি পোস্ট করছি। গতকাল কোনো একটি অনলাইন সংবাদপত্রে খবর প্রকাশ পেয়েছে, বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের এক নাতি মারা গেছেন। তবে আমি ইত্যাদির নাতি, আপনাদের প্রিয় নাতি এখনো জীবিত আছি। সবাই দোয়া করবেন, যেন দীর্ঘদিন আপনাদের মাঝে থাকতে পারি। ’

একটি জাতীয় দৈনিককে নিপু জানান, ‘কাল থেকে দুইশ’র বেশি কল এসেছে। সবাই ফোন করে জানতে চাচ্ছে আমি জীবিত আছি কি না। ভাবুন তো বিষয়টি আমার জন্য কতটা খারাপ লাগার! সবার ফোন রিসিভ করে উত্তর দিতে হচ্ছে আমি মরিনি. জীবিত আছি। তারা এভাবে জীবিত মানুষকে মৃত বলে খবর ছড়িয়ে কি আনন্দ পান। প্লিজ ভাই, সবাইকে নিউজ করে খবরটা জানিয়ে দেন আমি মরিনি, জীবিত আছি।’

দুঃখ প্রকাশ করে নিপু আরও বলেন, একদল লোক আছে যারা ফেসবুকে আমার নামে এমন মিথ্যা কথা প্রচার করে লাইক বাড়িয়ে নেয়। ইউটিউবে ভিউ বাড়িয়ে নেয়। তাদের বিরুদ্ধে থানায় জিডি করার পরামর্শ দিয়েছেন অনেকেই । কিন্তু আমি তো হতবাক নিজের মৃত্যুর খবরে মৃত ব্যক্তিকেই থানায় জিডি করতে হবে! কোথায় গিয়ে দাঁড়িয়েছি আমরা। দুইদিন ধরে মানসিকভাবে ভালো নেই আমি। গ্রামের বাড়িতেও মৃত্যুর খবর চলে গেছে। সেখানে এলাকাবাসীরা আমার মৃত্যুর খোঁজ নিতে আসছে। অতচ আমি ঢাকাতে দিব্যি কাজ করে চলেছি।’

প্রসঙ্গত, ১৯৮১ সালে ঢাকায় জন্মেছেন ‘ইত্যাদির নাতি’খ্যাত শওকত আলী তালুকদার নিপু। প্রয়াত অভিনেতা অমল বোসের সঙ্গে নাতির চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন নিপু। অমল বোস মারা যাওয়ার পর শবনম পারভীনের সঙ্গে অভিনয় করছেন তিনি।

না.হাসান/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: