প্রচ্ছদ / স্পোর্টস / বিস্তারিত

সংবাদ সম্মলনে আসছেন সাকিব

   
প্রকাশিত: ৮:০৭ অপরাহ্ণ, ১৩ জুন ২০২১

প্রিমিয়ার লিগে দুই দফা ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের করে তিন ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা ও ৫ লাখ টাকা আর্থিক জরিমানার শাস্তি পেয়েছেন সাকিব আল হাসান। নিষিদ্ধ হওয়ার আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ক্রিকেটভক্ত থেকে শুরু করে ক্রিকেটাঙ্গনের সবার কাছে দুঃখ প্রকাশ ও ক্ষমা চেয়েছেন মোহামেডানের এই অধিনায়ক। তবে সাকিবের মুখ থেকে কিছু শোনা যায়নি এখনও। রবিবার মোহামেডান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সোমবার বিকালে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সাকিবসহ নিজেদের অবস্থান তুলে ধরবেন তারা।

দুপুরে মোহামেডানের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ও আবাহনী লিমিটেডের মধ্যকার ম্যাচে ঘটে যাওয়া অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাকে কেন্দ্র করে মোহামেডান দলের অধিনায়কের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ এবং শাস্তিসহ অন্যান্য বিষয়ে সাকিব ক্লাবের নিজস্ব মতামত প্রদান করবেন।

যদিও ক্লাব কর্মকর্তা সূত্রে জানা গেছে, সাকিব জৈব সুরক্ষা বলয়ের কারণে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন না। সাকিবের লিখিত বক্তব্য পাঠ করে তার মতামত জানানো হবে। পাশাপাশি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সংবাদ সম্মেলনে সাকিবের অংশগ্রহণ করার সম্ভাবনা রয়েছে। মোহামেডানের পরিচালক মাসুদুজ্জামান বলেছেন, ‘জৈব সুরক্ষা বলয় ভঙ্গ হবে বলেই আমরা সাকিবকে আনতে পারছি না। তবে লিখিত বক্তব্য প্রধানের পর যদি প্রয়োজন হয় তাহলে ভার্চুয়ালি সাকিবকে যুক্ত করা হবে।’

এদিকে মোহামেডান ক্লাব বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বরাবর সাকিবের শাস্তি কমানোর আবেদন করেছে। সাকিবের শাস্তি মওকুফের ব্যাপারে মাসুদুজ্জামান জানিয়েছেন, ‘সাকিবের শাস্তি কমানোর ব্যাপারে আমরা সিসিডিএমের বরাবর মেইল করেছি। আজ সিসিডিএমের কাছে সরাসরি চিঠি দিয়েছি। আমরা মোহামেডানের পক্ষ থেকে অনুরোধ করেছি সাকিবের শাস্তি যেন কমানো হয়।’

প্রসঙ্গত, শুক্রবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটে আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচে মেজাজ হারিয়ে ‘অক্রিকেটীয় আচরণের’ শাস্তি হিসেবে নিষিদ্ধ হন সাকিব। আবাহনী ইনিংসের পঞ্চম ওভারের শেষ বলে মুশফিকুর রহিমকে আউট না দেওয়ায় সাকিব স্টাম্প লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেন। পরের ওভারে আম্পায়ার বৃষ্টির কারণে মাঠ কাভার দিয়ে ঢাকার নির্দেশ দিলে আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন তিনি। এবার তিনটি স্টাম্প উপড়ে আছাড় মারেন। এমন ঘটনার পর মাঠের বাইরেও সেটি নিয়ে বেশ কিছু সময় উত্তেজনা বিরাজ করেছিল।

সবশেষ আবাহনী ডাগআউটের সামনেও তাকে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় করতে দেখা যায়। এমন সময় আবাহনীর কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন ড্রেসিং রুম ছেড়ে এগিয়ে যেতে থাকেন মোহামেডানের ড্রেসিং রুমের দিকে। তেড়ে যেতে দেখা যায় সাকিবকেও। দুই দলের ক্রিকেটাররা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করেন। তবে বৃষ্টি কমার পর ম্যাচ শুরুর আগে আবাহনীর ড্রেসিং রুমে গিয়ে সাবেক এই ক্রিকেটারের কাছে ক্ষমা চান বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

কাওসার/শিই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: