প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

আব্দুল ওয়াদুদ

বগুড়া প্রতিনিধি

বান্ধবীকে আইফোন উপহার দিতে অপহরণের নাটক

   
প্রকাশিত: ৬:৩৩ অপরাহ্ণ, ২৭ জুলাই ২০২১

ছবি: প্রতিনিধি

বগুড়ার সোনাতলা উপজেলায় বান্ধবীকে মোবাইল কিনে দেওয়ার জন্য অপহরণের নাটক সাজিয়ে বাবার কাছে টাকা দাবি করে রাকিবুল হাসান রিয়াদ(১৯) ও তার বন্ধু মুন্না হাসন (১৮) নামের দুই যুবক। রাকিবুল হাসন রিয়াদ বগুড়া সোনাতলা উপজেলার নামাজখালী গামের ওবায়দুল সরকার ছেলে ও পরিকল্পনাকারী তার বন্ধু মো. মুন্না হাসান জয়পুর হাট জেলার কালাই থানার মোলামগাড়ী গ্রামের মইফুল আকন্দ ছেলে।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) বিকেলে র‍্যাব-১২ বগুড়ার কোম্পানী কমান্ডার (লে. কমান্ডার) আব্দুল্লাহ আল মামুন (জি) বিএন এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি এসব তথ্য জানান। তিনি আরো জানান, গত ২৪ জুলাই সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মো. রাকিবুল হাসান রিয়াদ বাড়ী থেকে বাহির হয়ে যায়। কিছুক্ষন পর থেকেই তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। পরবর্তীতে রিয়াদ বাড়ীতে ফিরে না আসায় তার অভিভাবক আশেপাশেসহ বিভিন্ন আত্মীয় স্বজনের বাড়ী এবং সম্ভাব্য সকল স্থানে খোঁজাখুঁজি করে। রিয়াদের কোন সন্ধান না পাওয়ায় তার মা সোনাতালা থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন (২৫ জুলাই সোনাতলা থানার জিডি নং-৯৫৯)। পরবর্তীতে ২৬ জুলাই সকালে রিয়াদের মোবাইল হতে তার বাবা বগুড়া বিদ্যুত বিভাগে কর্মরত মো. ওবাইদুলের মোবাইলে ফোন আসে এবং বলে “তোর ছেলে রিয়াদকে জীবিত উদ্ধার করতে হলে জরুরীভাবে এক লক্ষ টাকা রেডী করে জানা”, এরপর যখন পরিবার বুঝতে পারে রিয়াদ অপহৃত হয়েছে তারা দ্রুত বগুড়া র‌্যাব ১২ ক্যাম্পে এসে রিয়াদকে উদ্ধারের জন্য সহযোগীতা চায়। কিছুক্ষন পর আবার ফোন করে জানানো হয় রিয়াদকে প্রচন্ড মারপিট করা করা হচ্ছে। অপহৃত রিয়াদের কান্নাকাটিতে তার বাবা-মা ভেঙ্গে পড়ে এবং মুক্তিপনের টাকা দেওয়ার জন্য রাজি হয়। পরে র‌্যাবের চৌকষ টীম রিয়াদকে উদ্ধারে অভিযান শুরু করে। অবশেষে বগুড়া ও জয়পুরহাটের বিভিন্ন স্থানে অভিযান করে বগুড়া জেলার দুপচাঁচিয়া এলাকা হতে ২৬ জুলাই রাত্রিতে উদ্ধার করে।

র‍্যাব-১২ বগুড়ার কোম্পানী কমান্ডার (লে. কমান্ডার) আব্দুল্লাহ আল মামুন (জি) বিএন জানান, উদ্ধারকৃত রিয়াদ ও মুন্নাকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, রিয়াদ তার বাবার নিকট হতে এক লক্ষ টাকা মুক্তিপন নেওয়ার উদ্দেশ্যে এই অপহরণ ও মারপিটের নাটক সাজিয়েছিল। দাবীকৃত মুক্তিপনের টাকা দিয়ে রিয়াদ তার এক বান্ধবীকে একটি আইফোন উপহার দিবে বলে জানায়। পরে পরিকল্পনা মাফিক দুই বন্ধু এই নাটক সাজায় । অপহৃত রিয়াদ ও তার বন্ধু মুন্নাকে তাদের অভিভাবকদের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে এবং ভবিষ্যতে এধরনের কর্মকান্ডে নিজেদের জড়াবে না বলে মুচলেকা প্রদান করে।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: